অস্কারে ১২টি ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছে ‘দ্য পাওয়ার অব ডগ’

জেন কাম্পিয়নের ‘দ্য পাওয়ার অফ দ্য ডগ’ ১২টি ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছে।জেন কাম্পিয়ন নিজে গড়েছেন ইতিহাস, সেই সঙ্গে তার নির্মিত ‘দ্য পাওয়ার অব ডগ’কে রেখেছেন  এবারের অস্কার মনোনয়নে সবার চেয়ে এগিয়ে।চলচ্চিত্র জগতে সবচেয়ে বড় সম্মান বলে বিবেচিত অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ৯৪তম আসরের মনোনয়ন তালিকা মঙ্গলবার ঘোষণা করা হয়।

এতে ‘দ্য পাওয়ার অফ দ্য ডগ’, ‘ডুন’, ‘বেলফাস্ট’ ও ‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’- এই চার সিনেমারই জয়জয়কার।সেরা চলচ্চিত্র এবং সেরা নির্মাতা ছাড়াও বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ ক্যাটাগরিতে ওই চার সিনেমা মনোনয়ন পেয়েছে।এর মধ্যে ‘দ্য পাওয়ার অফ দ্য ডগ’ ১২টি, ‘ডুন’ ১০টি এবং ‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’ ও ‘বেলফাস্ট’ সাতটি ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছে।

সেরা চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে জেন কাম্পিয়ন এনিয়ে দুই বার অস্কার মনোনয়ন পেলেন, যা আর কোনো নারী নির্মাতার ক্ষেত্রে আগে কখনও ঘটেনি। নিউ জিল্যান্ডের এই নির্মাতা এর আগে প্রথম মনোনয়ন পেয়েছিলেন ১৯৯৩ সালে ‘দ্য পিয়ানো’র জন্য। সেরা নির্মাতা হওয়ার লড়াইয়ে কাম্পিয়নের সঙ্গে আরও তিনজনের পাশাপাশি রয়েছেন কিংবদন্তি নির্মাতা স্টিভেন স্পিলবার্গ তার‘ওয়েস্ট সাইড স্টোরি’ নিয়ে।

সেরা অভিনেতার (কেন্দ্রীয় চরিত্র) মনোনয়ন পেয়েছেন হাভিয়ের বারডেম, বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ, অ্যান্ড্রু গারফিল্ড ও উইল স্মিথ।‘স্পেনসার’ সিনেমার জন্য প্রথমবারের মতো অস্কারে সেরা অভিনেত্রী (কেন্দ্রীয় চরিত্র) ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ক্রিস্টিন স্টুয়ার্ট।তার লড়াই হবে অলিভিয়া কোলম্যান, নিকোল কিডম্যান, জেসিকা চ্যাস্টেইন ও পেনেলোপি ক্রুজের সঙ্গে।

ভারতীয় তথ্যচিত্র ‘রাইটিং উইথ ফায়ার’ সেরা ডকুমেন্টারি ফিচার ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছে। রিন্টু থমাস এবং সুস্মিত ঘোষ পরিচালিত এই ডকুমেন্টারিতে দলিত নারীদের ‘খবর লাহারিয়া’ নামে একটি পত্রিকা চালানোর সংগ্রাম উঠে এসেছে।

আগামী ২৭ মার্চ হলিউডের ডলবি থিয়েটারে মহাসমারোহে এবারের অস্কারের আসর বসার কথা রয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে গত বছর লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি খালি ট্রেন স্টেশনে অস্কার পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

ঐতিহ্যবাহী ডলবি থিয়েটারে ফেরার সঙ্গে সঙ্গে এবারের অস্কার আয়োজন ফিরছেন অনুষ্ঠানের হোস্টও। ২০১৯ সালে কমিডিয়ান কেভিন হার্টের অস্কার অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করার কথা থাকলেও কয়েক বছর আগে করা তার ‘হোমোফোবিক’ টুইট বিতর্কের কারণে উপস্থাপনা থেকে হার্টকে সরিয়ে নেওয়া হয়। তারপর থেকে অস্কার আয়োজন উপস্থাপকশূন্য।

বিডিনিউজ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 × 3 =