আজাদ রহমানের ৩ কন্যার ইউটিউব চ্যানেল

সংগীতজ্ঞ আজাদ রহমান এবং শিল্পী সেলিনা আজাদ দম্পতি তিন কন্যা- রুমানা আজাদ, রোজানা আজাদ ও নাফিসা আজাদ। স্বাভাবিক নিয়মেই তিনজনই বেড়ে উঠেছেন শতভাগ সংগীত আবহে।তিন বোন এক হয়ে গড়ে তুললেন ‘আজাদ সিস্টার্স’। উদ্যোগ নিলেন নিয়মিত গান প্রকাশের।

সেই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আজাদ সিস্টার্স-এর ইউটিউব চ্যানেলে উন্মোচিত হচ্ছে রুমানা আজাদের কথা ও সুরে নাফিসা আজাদের কণ্ঠে ‘লাগে না মন’ শিরোনামের মৌলিক গান। আর পুরো কাজটির তত্ত্বাবধানে ছিলেন রোজানা আজাদ।

কণ্ঠশিল্পী নাফিসা আজাদ বলেন, ‘কলকাতার গুণী সংগীতায়োজক সৌরভ বাবাই চক্রবর্তী গানটির আয়োজন করেছেন। আপাতত এটির লিরিক ভিডিও উন্মুক্ত করা হলেও শিগগিরই গল্পনির্ভর ভিডিও নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। আমরা চাই নিয়মিতই গান প্রকাশ করতে। বাকিটা নির্ভর করছে শ্রোতা ও সমালোচকদের ভালোলাগার ওপর।’

সংগীত কিংবদন্তি আজাদ রহমান ২০২০ সালের ১৬ মে ৭৬ বছর বয়সে অনেকটা হুটকরেই না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। ‘জন্ম আমার ধন্য হলো মা গো’, ‘ভালোবাসার মূল্য কত’, ‘ও চোখে চোখ পড়েছে যখনই’, ‘মনেরও রঙে রাঙাব’, ‘ডোরা কাটা দাগ দেখে বাঘ চেনা যায়’, ‘এক বুক জ্বালা নিয়ে বন্ধু তুমি’-সহ অনেক গানের সঙ্গে জড়িয়ে আছে আজাদ রহমানের নাম। কোনোটির সুরকার তিনি, কোনোটির সংগীত পরিচালক। বাংলা খেয়ালের প্রবর্তকও তিনি।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া বরেণ্য এ সংগীত পরিচালক ১৯৪৪ সালের ১ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। খেয়ালে স্নাতক সম্পন্ন করেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। কলকাতার জনপ্রিয় বাংলা ছবি ‘মিস প্রিয়ংবদা’ তার সংগীত পরিচালনা করা প্রথম চলচ্চিত্র। ছবিতে তার সংগীত পরিচালনায় কণ্ঠ দেন মানবেন্দ্র মুখোপাধ্যায়, প্রতিমা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আরতি মুখোপাধ্যায়। বাংলাদেশে প্রথম সংগীত পরিচালনা করেন বাবুল চৌধুরী পরিচালিত ‘আগন্তুক’ ছবিতে।

বাংলা ট্রিবিউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

five + 11 =