নাম বদলে দেড় বছর পর আসছে ‘রইল বাকি ১০’

শহরে ঘটছে একের পর এক খুনের ঘটনা। আতঙ্কিত গোটা শহর। খুনিদের হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ। এ রকম থ্রিলার গল্পে ২০২২ সালে শুটিং হয়েছিল ওটিটি প্ল্যাটফর্ম টফির প্রথম অরিজিনাল সিরিজ ‘হারাধনের ১০টি ছেলে’র। শাহাজাদা শাহেদের চিত্রনাট্যে ১০ পর্বের এই সিরিজটি বানিয়েছেন মাসউদ যাকারিয়া সাবিন। শুটিং শেষে হলেও সিরিজটি মুক্তির কোনো খবর পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে আলোর মুখ দেখছে সিরিজটি। তবে বদলে গেছে নাম। হারাধনের ১০টি ছেলে এখন ‘রইল বাকি ১০’। আগামী ১ জুলাই টফিতে মুক্তি পাচ্ছে এটি।

রইল বাকি ১০ সিরিজটি নিয়ে নির্মাতা মাসউদ যাকারিয়া সাবিন বলেন, ‘সিরিজটি নির্মিত হয়েছে থ্রিলার গল্পে। হারাধনের ১০টি ছেলে নামে শুরু করলেও পরবর্তী সময়ে সিরিজটির নাম রাখা হয় রইল বাকি ১০। গল্পে দেখা যাবে একটা শহরে ধারাবাহিকভাবে খুন হচ্ছে। তদন্তে নামে পুলিশ। বেরিয়ে আসতে থাকে চাঞ্চল্যকর তথ্য। যাদের খুনের সঙ্গে জড়িত ভাবা হচ্ছিল তাদের কেউ খুনি নয়। এবার উঠে আসে এক সিরিয়াল কিলারের নাম। তাকে হন্য হয়ে খুঁজতে থাকে পুলিশ। থ্রিলার গল্প হলেও দর্শক সিরিজটি দেখে আনন্দ পাবেন বলেই আমার বিশ্বাস।’

শুটিং শেষ হলেও মুক্তি দিতে দেরি হওয়ার কারণ জানিয়ে যাকারিয়া সাবিন বলেন, ‘রইল বাকি ১০ টফির প্রথম অরিজিনাল সিরিজ। এর আগে তারা কোনো সিরিজ বানায়নি। অন্যদের বানানো কনটেন্ট প্রচার করেছে প্ল্যাটফর্মটি। তাই সিরিজটি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির অনেক প্রত্যাশা ও পরিকল্পনা ছিল। নানা ধরনের প্রস্তুতি, সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হওয়া—এমনি নানা কারণে কিছু জটিলতা সৃষ্টি হয়েছিল। এ কারণেই একটু দেরি হয়ে গেল সিরিজটি মুক্তি দিতে।’

রইল বাকি ১০-এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন এফ এস নাঈম, অর্চিতা স্পর্শিয়া, শতাব্দী ওয়াদুদ, নাদের চৌধুরী, আহসান হাবিব নাসিম প্রমুখ। একটি বিশেষ চরিত্রে দেখা যাবে জিয়াউল রোশানকে।

সিরিজের মুক্তির তারিখ ঘোষণা করলেও প্রচারে লক্ষ করা যায়নি কোনো অভিনয়শিল্পীকে। সামাজিক মাধ্যমেও সিরিজের পোস্টার শেয়ার করেননি কেউ। নির্মাতা জানালেন, এটাও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনা অনুযায়ীই হচ্ছে। এখনো কেউ আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করেননি। দু-এক দিনের মধ্যেই সবাই পরিকল্পনা মাফিক প্রচারে অংশ নেবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × three =