ইশরাত নিশাত নাট্য পুরস্কার বিজয়ী যাঁরা

শুক্রবার সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে হয়ে গেল ‘ইশরাত নিশাত নাট্য পুরস্কার ২০২৩’। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন নাট্যব্যক্তিত্ব মাসুদ আলী খান। এ ছাড়া ছিলেন নাট্যজন মামুনুর রশীদ, পুরস্কার বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারপারসন নাসির উদ্দীন ইউসুফ, কো-চেয়ারম্যান সারা যাকের প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্যে নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘নিশাতের মা নাজমা আনোয়ার নাট্যচর্চায় যুক্ত ছিলেন। নিশাতও ছোট থেকেই থিয়েটারের সঙ্গে বেড়ে উঠেছে। দেশের প্রগতিশীল বিভিন্ন আন্দোলনে সরাসরি অংশ নিয়েছে নিশাত। নিশাতের নামাঙ্কিত এ পুরস্কারের মধ্য দিয়ে সে বেঁচে থাকবে এই প্রজন্মের নাট্যকর্মীদের মাঝে।’

এবার ৯টি শাখায় এ নাট্য পুরস্কার দেওয়া হয়। প্রতিটির আর্থিক সম্মাননার পরিমাণ সর্বনিম্ন ২৫ হাজার টাকা। সেই সঙ্গে দেওয়া হয় ক্রেস্ট ও সনদ। সেরা প্রযোজনার পুরস্কারের আর্থিক মূল্য ১ লাখ টাকা।

এ বছর জুরিবোর্ডের দেখা নাটকের সংখ্যা ছিল ৩৩টি। নাটকগুলো মূল্যায়ন করে সেরা প্রযোজনা, নাট্যকার, নির্দেশক, অভিনয়শিল্পী, আলো, পোশাক, সংগীতসহ ৯টি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়। পুরস্কার প্রদানের ফাঁকে ফাঁকে চলে গান ও নৃত্য পরিবেশনা। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন তারিক আনাম খান ও রওনক হাসান।

২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি প্রয়াত হন অভিনেত্রী, নির্দেশক ও আবৃত্তিশিল্পী ইশরাত নিশাত। আমৃত্যু তিনি কাজ করেছেন শুধু থিয়েটারের জন্য। গত বছর থেকে তাঁর নামে ইশরাত নিশাত নাট্য পুরস্কার চালু হয়।

সেরার তালিকা

প্রযোজনা: অচলায়তন (প্রাচ্যনাট)

নাট্যকার: বাকার বকুল (আদম সুরত, তাড়ুয়া)

নির্দেশক: আজাদ আবুল কালাম

(অচলায়তন, প্রাচ্যনাট)

অভিনেতা (পুরুষ): রমিজ রাজু (দ্য রেসপেক্টফুল প্রস্টিটিউট, থিয়েটার ফ্যাক্টরি)

অভিনেতা (নারী): ফৌজিয়া করিম অনু (হার্মাসিস ক্লিওপেট্রা, অনুস্বর)

আলোক পরিকল্পক: অনিক কুমার

(সিদ্ধার্থ, আরশিনগর)

পোশাক পরিকল্পক: জিনাত জাহান নিশা ও নুসরাত জাহান জিসা (সিদ্ধার্থ, আরশিনগর)

সংগীত পরিকল্পক: নীল কামরুল (অচলায়তন, প্রাচ্যনাট)

মঞ্চ পরিকল্পক: সাইফুল ইসলাম

(অচলায়তন, প্রাচ্যনাট)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × 1 =