এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ড পেলেন কণ্ঠশিল্পী ডন

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও জমকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ১৭ তম ‘আর্টিস-জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ-এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ড-২০২৩-২৪।’ বিনোদন জগতের আতুরঘর বিএফডিসির এটিএন বাংলার ৯ নম্বর ফ্লোরে বসেছিল এবারের আসর।

মিডিয়ার নামিদামি সব তারকার সপ্রতিভ উপস্থিতি এবারও অনুষ্ঠানকে করে তোলে আকর্ষণীয়। এমন আয়োজনের অন্যতম মধ্যমণি সময়ের আলোচিত এবং জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। ২০২৩ সালে সংগীতে অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ডে’ এবার ভূষিত হলেন জনপ্রিয় এ করপোরেট ব্যক্তিত্ব।

এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) শুধু বিনোদন দুনিয়াতেই নন; বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের এক পরিচিত নাম। জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্রীড়া সংগঠক ওয়ালটনের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী পরিচালক ডন ক্রীড়াঙ্গনে সকলের নিকট পরিচিত, সমাদৃত। প্রথমবারের মতো সম্মানজনক ‘এজেএফসি স্টার অ্যাওয়ার্ডে’ ভূষিত হলেও তার ঝুলিতে রয়েছে এমন অসংখ্য পুরস্কার-সম্মাননা স্মারকে ভূষিত হওয়ার রেকর্ড। অগণিত পুরস্কারে ভূষিত কণ্ঠশিল্পী ডন এজেএফসি স্টার অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তিকে একটু ভিন্নভাবেই দেখছেন। যেখানে বিনোদন জগতের সাংবাদিকদের দৃষ্টিতে সেরাদের বাছাই করে দেওয়া হয় এই পুরস্কার। সাংবাদিকদের চুলচেরা বিশ্লেষণে সংগীতে সেরার পুরস্কার জেতায় তাই দারুণ খুশি ডন।

একবার/দুবার নয়, ১৭তম বারের মতো বিনোদন জগতের সেরাদের হাতে এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ড তুলে দিতে পেরে খুশি আয়োজকরাও। কণ্ঠশিল্পী ডনের পুরস্কারপ্রাপ্তির বিষয়ে আয়োজকদের একজন বলছিলেন, ‘ডন ভাই ক্রীড়া জগতের মানুষ হিসেবে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। দেশের অবহেলিত খেলাধুলাকে এগিয়ে নিতে ওয়ালটনের মাধ্যমে দীর্ঘদিন অবদান রেখে যাচ্ছেন। ক্রীড়াঙ্গনের সফল এ ব্যক্তিত্ব আমাদের বিনোদন দুনিয়াতে এসেও সাফল্যের স্বাক্ষর রেখেছেন। গানটাকে শুধু তিনি উপভোগই করছেন না; দরদ দিয়ে গাইছেনও। নিয়মিত আমরা তার কাজ দেখি। তার গান শুনি। সংগীতে তার অবদানকে পুরস্কারের মাধ্যমে সম্মান জানাতে পেরে আমরাও নিজেদের ধন্য মনে করছি।’

পুরস্কার পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত ডন বলেন, ‘যে কোনো পুরস্কারপ্রাপ্তিই দায়িত্ববোধ আরও বাড়িয়ে দেয়। সেই কাজের প্রতি গুরুত্ব বাড়িয়ে দেয়। এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ডও এর ব্যতিক্রম নয়। ১৭ তম বারের মতো এমন একটি পুরস্কার দেশে চালু রয়েছে। এটি কিন্তু চাট্টিখানি কথা নয়। আয়োজকরা আমাকে এমন সম্মানজনক পুরস্কার অর্থাৎ সংগীত ক্যাটাগরিতে সম্মানিত করায় তাদের প্রতি ধন্যবাদ। পূর্বে আমি যেভাবে আমার কাজ দিয়ে দর্শক-শ্রোতাদের বিনোদিত করেছি, সেই ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।’

বাংলাদেশ বিনোদন সাংবাদিক সমিতির (বাবিসাস) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, মজুমদার ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক, চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং সিনেমা গল্পের লেখক আবুল হোসেন মজুমদার, (এজেএফবি) কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি ফারুক হোসেন মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক নীরব হোসেন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন মজুমদারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এজেএফবি স্ট্যার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। যেখানে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিনোদন দুনিয়ার সেরাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

উল্লেখ্য ‘এজেএফবি স্ট্যার অ্যাওয়ার্ড’ প্রাপ্তির আগে ক্রীড়া এবং সংগীতে অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। যার মধ্যে মিরর ম্যাগাজিন কর্তৃক অনলাইন রিয়েল হিরোজ অ্যাওয়ার্ড, আইকনিক স্টার অ্যাওয়ার্ড, ঢাকা ললিতকলা একাডেমি কর্তৃক ডিএলএ স্টার অ্যাওয়ার্ড, ময়ূরপঙ্খী স্টার অ্যাওয়ার্ড তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 × 2 =