ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি জায়েদ খানের

ঢাকাই ছবির আলোচিত সমালোচিত নায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে চিত্রনায়ক ওমর সানীকে পিস্তল বের করে গুলি করার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার (১০ জুন) রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে অভিনেতা ও প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজলের ছেলের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

এ ঘটনার সময় উপস্থিত থাকা চলচ্চিত্র অঙ্গনের কয়েকজন জানান, কয়েকদিন আগে মৌসুমীর সঙ্গে জায়েদ খান খারাপ আচরণ করেছেন। সে কারণে অনুষ্ঠানে ঢুকেই ওমর সানী সরাসরি জায়েদ খানকে চড় মারেন। তারপর জায়েদ খান এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। জায়েদ খানের এমন আচরণে বিস্মিত ও হতবাক বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা চলচ্চিত্রশিল্পীরা। তবে জায়েদ খান এ ঘটনাকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন।

বিয়েতে উপস্থিত কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, জায়েদ নাকি মৌসুমীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছেন। এটা নিয়ে জায়েদের ওপর ওমর সানী ভীষণ বিরক্ত ছিল। এ বিষয়ে ডিপজলের কাছে বিচারও চান ওমর সানী। ডিপজল উভয়কে ঠান্ডা থাকতে বলেন। উভয়কে দূরে থাকারও পরামর্শ দেন তিনি।

তবে ডিপজলের ওই সমাধান ওমর সানীর ভালো লাগেনি এবং মেনেও নেননি। তাই জায়েদ খানকে ডিপজলের ছেলের বিয়েতে পেয়েই চড় মেরে বসেন এবং বলেন তোরে (জায়েদ) না নিষেধ করছি, আমার বউরে (মৌসুমি) ডিস্টার্ব না করতে। কোনো ফাজলামি করবি না। অসম্মান করে কথা বলবি না।

এ কথা শুনেই জায়েদ খান কোমর থেকে পিস্তল বের করে বলেন, ‘গুলি করে দেব’। পরে ডিপজল উভয়কে থামিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে একজন জানান, জায়েদের পিস্তল বের করা দেখে ডিপজল উঠে দাঁড়ান। আর বলেন, এ আমার ছেলে বিয়ের অনুষ্ঠান। এত বড় অনুষ্ঠান। এত মানুষ ছিল এসব কী করছ তোমরা। অনেক মানুষ থাকায় কেউ টের পায়নি। এরপর ওমর সানীকে ডেকে ডিপজল বলেন, খাইয়া যাবা না? সানী বলেন, আমার মাথা গরম। আমি খাব না। এরপর গাড়ি চালিয়ে বের হয়ে যান ওমর সানী। ওমর সানী বের হওয়ার আধা ঘণ্টা পর জায়েদ খানও বের হয়ে যান।

জায়েদ খান অস্বীকার করে বলেন, এটা মিথ্যা খবর। এমন কোনো ঘটনাই বিয়েতে ঘটেনি। আমি পিস্তল নিয়ে যাইনি। ওই এলাকায় পিস্তল নিয়ে যাওয়াও যায় না। আর ওমর সানীর চড় মারার তো প্রশ্নই আসে না।

অভিনেতা ডিপজলের  বলেন, আপনারা জায়েদ খানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তবে, এ বিষয়ে ওমর সানী বলেন, ঘটনা সত্য।

বার্তা২৪

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

15 − 10 =