কাঙ্গুভা সিনেমার একটি অ্যাকশন দৃশ্যে ১০ হাজার শিল্পী

‘সুরুরাই পতরু’, ‘জয় ভীম’ ও ‘ইথারক্কুম থুনিন্ধবন’—তামিল অভিনেতা সুরিয়ার সর্বশেষ তিনটি সিনেমাই বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। কমল হাসানের ‘বিক্রম’ সিনেমায় রোলেক্স নামের অতিথি চরিত্রে হাজির হয়েও প্রশংসিত হয়েছেন। গত বছর কোনো সিনেমা মুক্তি পায়নি সুরিয়ার। দুই বছরের বেশি সময় পর ‘কাঙ্গুভা’ নিয়ে তিনি পর্দায় দেখা দেবেন আগামী অক্টোবরে। ইতিহাসনির্ভর এ অ্যাকশন সিনেমায় সুরিয়ার সঙ্গে রয়েছেন বলিউডের ববি দেওল ও দিশা পাটানি। দুজনেরই প্রথম তামিল সিনেমা এটি। গতকাল ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, কাঙ্গুভা সিনেমার একটি অ্যাকশন দৃশ্যে অংশ নিয়েছেন ১০ হাজার শিল্পী। ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে এটিই সর্বোচ্চ ব্যয়বহুল অ্যাকশন দৃশ্য।

কাঙ্গুভার গল্প লেখা হয়েছে এমন সময়ের প্রেক্ষাপটে, যখন ঘোড়ায় চেপে তির-তলোয়ার দিয়ে যুদ্ধ হতো। এক বীর যোদ্ধার চরিত্রে আছেন সুরিয়া। এতে তাঁকে ১৩টি ভিন্ন লুকে দেখা যাবে। এর আগে ‘আয়ান’ সিনেমায় সর্বোচ্চ ১০টি লুকে হাজির হয়েছিলেন সুরিয়া। কাঙ্গুভায় চরিত্রের লুক তৈরি হয়েছে মেল গিবসনের আলোচিত ‘অ্যাপোক্যালিপ্টো’ সিনেমার আদলে। গোত্রে গোত্রে যুদ্ধ, অপশক্তির বিরুদ্ধে শুভশক্তির যুদ্ধ ঘোষণা ও জয়—সবই রয়েছে গল্পে। ‘অ্যানিমেল’-এর পর কাঙ্গুভায় আবার নেতিবাচক চরিত্রে দেখা যাবে ববি দেওলকে।

নায়ক ও ভিলেনের একাধিক অ্যাকশন দৃশ্য থাকবে সিনেমায়। পরিচালক শিবা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকশন দৃশ্যটির শুটিং করেছেন বিরাট আয়োজনে। তৈরি করা হয়েছে যুদ্ধের আবহ, যেখানে সুরিয়া ও ববির সঙ্গে ছিলেন ১০ হাজার শিল্পী। দৃশ্যটির নেপথ্যে কাজ করেছেন হলিউডের অ্যাকশন বিশেষজ্ঞরা। অ্যাকশন থেকে স্ট্যান্ট, ভিজ্যুয়ালাইজেশন—সব ক্ষেত্রে থাকবে নতুনত্ব। সম্প্রতি প্রকাশিত টিজারে সেই আভাস পাওয়া গেছে।

তামিল ইন্ডাস্ট্রির এ বছরের সবচেয়ে ব্যয়বহুল সিনেমা হতে যাচ্ছে কাঙ্গুভা। নির্মাতা শিব জানিয়েছেন, এর আগে কোনো ভারতীয় সিনেমায় এত ব্যাপক পরিধির অ্যাকশন দেখা যায়নি। শুধু গল্প নয়, দৃশ্যায়নের দিক থেকেও এটি একটি উদাহরণ হয়ে থাকবে বলে আশাবাদী তিনি। আগামী অক্টোবরে কাঙ্গুভা টুডি ও থ্রিডি ভার্সনে মুক্তি পাবে ১০টি ভাষায়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

one × 3 =