গানে গানে রুনা লায়লার ছয় দশক

সংগীতজীবনের ছয় দশক পূর্ণ করলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী ও সুরকার রুনা লায়লা। তাঁর সংগীত ক্যারিয়ার শুরু হয় মাত্র ১২ বছর বয়সে উর্দু সিনেমা ‘জুগনু’তে প্লেব্যাকের মাধ্যমে। ১৯৬৪ সালের ২৪ জুন জুগনু সিনেমার ‘গুড়িয়া সি মুন্নি মেরি ভাইয়া কি পেয়ারি’ গানে কণ্ঠ দেন রুনা লায়লা। গানটি লিখেছিলেন তিসনা মেরুতি, সংগীত আয়োজন করেছিলেন মানজুর। এরপর পাকিস্তানের অনেক সিনেমায় প্লেব্যাক করেন রুনা।

মহান মুক্তিযুদ্ধের আগেই রুনা লায়লা বাংলাদেশের সিনেমায় প্লেব্যাক শুরু করেন ‘গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে’ গান দিয়ে। নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘স্বরলিপি’ (১৯৭০) সিনেমার এ গান লিখেছিলেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সুর করেছিলেন সুবল দাস। গানে লিপসিং করেছিলেন চিত্রনায়িকা ববিতা। প্রথম প্লেব্যাকেই ব্যাপক সাড়া ফেলেন রুনা লায়লা। এরপর অসংখ্য বাংলা সিনেমার গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি।

গানের ভুবনে তাঁর এই পথচলা এখনো ছুটে চলেছে। গত ঈদুল আজহায়ও প্রকাশ পেয়েছে রুনার নতুন গান ‘ভেজা ভেজা রাত ভেজা ভেজা মন’। রফিকুজ্জামানের কথায় গানটির সুর করেছেন মো. সাদেক আলী। গানটি প্রচারিত হয় ঈদের দিন সকালে বাংলাদেশ বেতারে।

সংগীতজীবনে ছয় দশক পূর্ণ হওয়া প্রসঙ্গে রুনা লায়লা বলেন, ‘জুগনু সিনেমার সংগীত পরিচালক মানজুর সাহেবের প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ আমি। কীভাবে সিনেমায় গান গাইতে হয়, তা টানা এক মাস আমাকে শিখিয়েছেন। এটা আমার সারা জীবন কাজে লেগেছে। আমি ভীষণ ভাগ্যবতী যে শুরু থেকে এখন পর্যন্ত কোটি কোটি মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। এখনো গান গাইতে পারছি, সুর করতে পারছি; এটাই অনেক বড় বিষয়। তার চেয়েও বড় কথা, আমার সংগীতজীবনের চলার পথের ছয় দশক আমি নিজের চোখে উপভোগ করে যেতে পারছি। এটা যে কত বড় সৌভাগ্যের বিষয়, কত বড় প্রাপ্তি; তা আসলে ভাষায় প্রকাশের নয়।’

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে বাংলা, হিন্দি, উর্দু, গুজরাটি, পাঞ্জাবি, সিন্ধি, পশতু, আরবি, পারসিয়ান, মালয়, নেপালি, জাপানি, ইতালীয়, স্প্যানিশ, ফরাসি, ইংরেজিসহ ১৮টি ভাষায় গান গেয়েছেন রুনা লায়লা। স্বীকৃতিস্বরূপ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে তিন শর বেশি সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

এদিকে, রুনা লায়লার সংগীতজীবনের ছয় দশক পূর্তিতে আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় তাঁকে নিয়ে চ্যানেল আইতে সরাসরি প্রচার হবে বিশেষ অনুষ্ঠান। এতে সংগীতজীবনের নানা বিষয় নিয়ে কথা বলবেন রুনা লায়লা। অনন্যা রুমার প্রযোজনায় এ অনুষ্ঠানে আলাপচারিতার পাশাপাশি গানও শোনাবেন রুনা লায়লা। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ইমরান, ইউসুফ, লুইপা, ঝিলিক, কোনালসহ বেশ কয়েকজন শিল্পী। রুনা লায়লার সামনে তাঁরা শিল্পীর বিভিন্ন জনপ্রিয় গান গেয়ে শোনাবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

15 + four =