গায়ক ও সুরকার বাপ্পি লাহিড়ী আর নেই

উপমহাদেশের কিংবদন্তি গায়ক ও সুরকার বাপ্পি লাহিড়ী চলে গেলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে ‘অবস্ট্রাকটিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া (ওএসএ)’-তে আক্রান্ত হয়ে মুম্বইয়ের ক্রিটিকেয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। গত বছর এপ্রিল মাসে বাপ্পি লাহিড়ীর করোনা ধরা পড়ে। সেই সময় মুম্বইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায়, গত এক মাস ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী। কিছুটা সুস্থ হলে সোমবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরেন। কিন্তু মঙ্গলবারই ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরিবারিক চিকিৎসক তাকে আবার ক্রিটিকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেন। মধ্যরাতেই অবস্ট্রাকটিভ স্লিপ অ্যাপনিয়ারে (ওএসএ) তিনি পরলোকে পাড়ি জমান।

১৯৭০ থেকে ৮০-এর দশকে হিন্দি ছায়াছবির জগতে অন্যতম জনপ্রিয় নাম বাপ্পি লাহিড়ী। ডিস্কো ডান্সার, চলতে চলতে, শরাবিসহ অসংখ্য জনপ্রিয় হিন্দি সিনেমায় গান গেয়েছেন তিনি।  বাংলায় অমর সঙ্গী, আশা ও ভালোবাসা, আমার তুমি, অমর প্রেম প্রভৃতি ছবিতে সুর ও কণ্ঠ দিয়েছেন। ২০২০ সালে তার শেষ গান ছিল ‘বাঘি- ৩’ সিনেমায়।

বাপ্পি লাহিড়ী ১৯৫২ সালের ২৭ নভেম্বর পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। কিশোর কুমার ছিলেন বাপ্পির সম্পর্কে মামা। বাবা অপরেশ লাহিড়ী ও মা বাঁশরী লাহিড়ী— দু’জনেই সঙ্গীত জগতের মানুষ ছিলেন। মা-বাবার কাছেই পান প্রথম গানের তালিম নেন।

বাপ্পি লাহিড়ী শরীরে প্রচুর সোনার গয়না পরতে ভালোবাসতেন। ছিল গায়কির নিজস্ব কায়দা, যা তাকে হিন্দি ছবির জগতে অনন্য় হিসেবে পরিচিতি দিয়েছিল।বাপ্পি লাহিড়ী রাজনীতিতেও নেমেছিলেন। বিজেপি-তে যোগ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের শ্রীরামপুর কেন্দ্র থেকে লোকসভা ভোটে লড়েছিলেন। কিন্তু রাজনীতিতে সেভাবে যুক্ত হননি।

বার্তা২৪

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

12 + 2 =