তিন নাটক নিয়ে বাতিঘরের উৎসব

প্রতিষ্ঠার ১৩ বছর উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী নাট্যোৎসবের আয়োজন করেছে বাতিঘর থিয়েটার। আজ থেকে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হচ্ছে উৎসব। এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে প্রদর্শিত হবে বাতিঘরের একটি করে নাটক। প্রথম দিন ‘ঊর্ণাজাল’, আগামীকাল ‘মাংকি ট্রায়াল’ এবং উৎসবের শেষ দিন সোমবার প্রদর্শিত হবে ‘ভগবান পালিয়ে গেছে’।

উৎসবের তিন দিন বিকেল ৫টা থেকে নাটক শুরু হওয়ার আগে পর্যন্ত শিল্পকলা একাডেমির বহিরাঙ্গনে থাকছে গান, নাচ, মাইমসহ নানা পারফর্মিং আর্ট। নাটকের বিশেষ অতিথির ক্ষেত্রেও বাতিঘর এনেছে বৈচিত্র্য। প্রথম দিন ঊর্ণাজালের প্রদর্শনীতে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন ১৩ জন সাধারণ দর্শক। দ্বিতীয় দিন মাংকি ট্রায়ালের প্রদর্শনীতে থাকবেন ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষকমণ্ডলী এবং তৃতীয় দিনের অতিথি হিসেবে থাকবেন বাতিঘর থিয়েটারের সদস্যদের মা-বাবা। উৎসবের প্রতিদিন নাটক শেষে থাকবে গান, বাজনা এবং আড্ডা।

বাতিঘর থিয়েটারের পরিচালক বলেন, ‘গত ১৩ বছরে আমাদের যাত্রা বাতিঘরের সদস্যদের একাত্মতা ও নিরলস নাট্য সাধনার ফসল। আমরা দর্শকদের কাছে শিল্পমানসমৃদ্ধ নাটক পৌঁছে দিতে পেরে আনন্দিত এবং গর্বিত। দর্শকের ভালোবাসা আমাদের শ্রেষ্ঠ অর্জন বলে আমরা বিশ্বাস করি।’

২০১১ সালে যাত্রা শুরু হয় বাতিঘর থিয়েটারের। এ পর্যন্ত দলটি মঞ্চে এনেছে ১৩টি নাটক। নাটকগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘মাংকি ট্রায়াল’, ‘ভগবান পালিয়ে গেছে’, ‘হিমুর কল্পিত ডায়েরি’, ‘প্যারাবোলা’ ইত্যাদি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + 2 =