দিলারা জামান আজীবন সম্মাননা পেলেন

‘বাংলাদেশ উইমেন ওয়ারিয়র্স অ্যাওয়ার্ড অ্যান্ড এক্সপো’তে গুণী অভিনেত্রী দিলারা জামান লাইফ টাইম এচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। বাংলাদেশ উইমেন ওয়ারিয়র্স অ্যাওয়ার্ড অ্যান্ড এক্সপো’র সমাপনী দিনে সুবিধাবঞ্চিত শিশু, ট্রান্সজেন্ডার, নারী উদ্যোক্তাসহ মোট ৩৫ জনের হাতে সম্মাননা পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

দিলারা জামান বলেন, ‘এটি আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ সন্ধ্যা। দীর্ঘ ৮০ বছর বয়সে সেরা পাওয়া। আজ যাদের দেখলাম তারা, আমাদের সন্তান, আমাদের ভাই বোন। মানুষ হয়ে মানুষের প্রতি কী দায়িত্ব এই আয়োজনের আয়োজকরা বুঝিয়ে দিল। নিজের কাছে প্রশ্ন আসছে- এ জীবনে কী করেছি? আজকের আয়োজন এই শিক্ষাই দিল, মানুষের পাশে দাঁড়ান।’

অনষ্ঠানে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে র‍্যাম্প ক্যাটওয়াক করেন ট্রান্সজেন্ডার নারী ও অটিস্টিকরা। তাদের র‍্যাম্প ক্যাটওয়াকে চমক হিসেবে হাজির হন গুণী অভিনেত্রী দিলারা জামান। এর আগে তিনি ১৯৯৩ সালে একুশে পদক এবং ২০০৮ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস (৮ মার্চ) উপলক্ষে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ট্রান্সজেন্ডার, পথশিশু ও বিশেষ শিশুদের নিয়ে চার দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ উইমেন ওয়ারিয়র্স অ্যাওয়ার্ড অ্যান্ড এক্সপো’।

আইসিসিবির সার্বিক সহযোগিতায় ‘রিয়েল হিরো’জ এক্সপো অ্যান্ড কমিনিউকেশনের আয়োজনে গত ৫ মার্চ শুরু হওয়া আয়োজনটি অ্যাওয়ার্ড বিতরণের মাধ্যমে শেষ হয় মঙ্গলবার রাতে। এতে সার্বিক সহযোগিতা করেছে বিটিএল হাউজ, ঢাকা টকিজ।

৫ মার্চ, শনিবার এই এক্সপোর উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মেল হক।তিনি বলেছেন, এটা আমার জন্য গর্বের এবং সম্মানের বিষয় যে আমি এই গুণী অভিনেত্রীর হাতে আজীবন সম্মাননা পদকটি তুলে দিতে পেরেছি। আমি নিজেও তার অভিনয়ের একজন ভক্ত।

সারাবাংলা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 + seven =