দেশে ১৬ সপ্তাহে সর্বনিম্ন  কোভিড শনাক্ত, ৬. ০৫ শতাংশ

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে। আগের ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ১৯০ জন নতুন রোগী শনাক্তের খবর শনিবার দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। দিনে এত এত কম রোগী শনাক্ত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে বিপর্যয় নেমে আসার পর আর দেখা যায়নি।

এর চেয়ে কম রোগী শনাক্ত হয়েছিল গত ২৯ মে, ১ হাজার ৪৩ জন। তারপর থেকে সংখ্যা ঊর্ধ্বমুখী ছিল। নতুন শনাক্তদের নিয়ে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৪১ হাজার ৩০০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের। তাদের নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ১৮২। গত এক দিনে সেরে উঠেছে ১ হাজার ৬৪৫ জন, তাদের নিয়ে এই পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠল ১৪ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৪ জন।

এই হিসাবে দেশে বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা মাত্র ১৫ হাজার ৪৬৪। অর্থাৎ দেশে এখন এই সংখ্যক মানুষ করোনাভাইরাস সংক্রমিত অবস্থায় রয়েছে। অথচ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের দাপটে জুলাই-অগাস্ট জুড়ে দৈনিক সক্রিয় রোগীর সংখ্যা লাখের উপরও উঠেছিল।

দৈনিক শনাক্তের হারও কমেছে। শনিবার নমুনা পরীক্ষা অনুযায়ী শনাক্তের হার দাঁড়ায় ৬ দশমিক ০৫ শতাংশ, যা আগেরদিন ৬ দশমিক ৪১ শতাংশ ছিল।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত এক দিনে সারা দেশে মোট ১৯ হাজার ৬৬৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ৯৪ লাখ ১৩ হাজার ৩৩টি নমুনা। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ; মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

গত এক দিনে শুধু ঢাকা বিভাগেই ৬৭৬ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, যা দিনের মোট শনাক্তের প্রায় অর্ধেক। আর এর ৫৩৩ জনই ঢাকা জেলার।

বিডিনিউজ

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

nineteen + three =