দেড় বছর পর নীরবতা ভাঙলেন পপি

প্রায় দেড় বছর আড়ালে থাকার পর প্রকাশ্যে এলেন জাতীয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী সাদিকা পারভীন পপি। বুধবার (২৬ জানুয়ারি) দুপুর থেকেই পপির একটি ভিডিও বার্তা চলচ্চিত্রের বিভিন্ন গ্রুপে ছড়িয়ে যায়।যেখানে কাঁদতে দেখা যায় এই অভিনেত্রীকে। একইসঙ্গে জানিয়েছেন চলচ্চিত্র থেকে দূরে থাকার কারণ।

এ সময় শিল্পী সমিতিকে নোংরা ব্যক্তিদের হাত থেকে উদ্ধার করার আহবান জানিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ প্যানেলের জন্য ভোট চান পপি। তবে নিজের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কোন কথা বলেননি এই অভিনেত্রী।

ভিডিও বার্তায় পপি জানান, শিল্পী সমিতির বিদায়ী কমিটির ক্ষমতাসীন এক ব্যক্তির দ্বারা অপমানিত হয়েছেন তিনি। যদিও তিনি সরাসরি ওই ব্যক্তির নাম প্রকাশ করেননি। কিন্তু এ কথা জানাতে গিয়ে আবেগতাড়িত হয়ে কাঁদতে দেখা যায় ‘কুলি’ সিনেমার এই নায়িকাকে।

কষ্ট নিয়ে পপি বলেন, শিল্পী সমিতির একটি লোকের কারণে বার বার অপমানিত হতে হয়েছে। আমাদেরকে ব্যবহার করে যে এই চেয়ারটিতে বসেছে- সেখানে বসেই বিভিন্ন রকমের অপকর্মের চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমরা গুটি কয়েকজন তাতে সায় দিইনি। যার কারণে আজকে আমি ভিক্টিম।

তিনি আরও বলেন, আমার মতো শিল্পীকে সদস্য পদ বাতিলের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এতো বছর কাজ করার পর এমন আচরণ কতোটুকু অপমানের- সেটা আমি বুঝতে পারি। ১৮৪ জন শিল্পীরাও এই কষ্টটা বুঝতে পারবে।

এই অভিনেত্রী বলেন, এসব কারণে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। সদস্য পদ বাতিলের চিঠিটা যখনই পেয়েছি, তখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছি নোংরামির মধ্যে আর যাবো না। ভেবেছি, কখনো যদি পরিবেশ ভালো হয়- তখনই চলচ্চিত্রে ফিরবো।

বাংলানিউজ

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × 3 =