ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ ক্রিকেটার ইয়াসিরের বিরুদ্ধে

এক কিশোরীকে ধর্ষণে বন্ধুকে সহযোগিতা ও ব্যাপারটা ধামাচাপার দেওয়ার চেষ্টা করার অভিযোগে মামলা হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ইয়াসির শাহর বিরুদ্ধে। পাকিস্তানের এক সংবাদমাধ্যমের দাবি, ধর্ষিতার বয়স ১৪ বছর। ইসলামাবাদের শালিমার থানায় ইয়াসির ও তার বন্ধু ফারহানের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন মেয়েটির খালা। যা পরে মামলায় পরিণত হয়।অভিযোগে জানানো হয়েছে, ইয়াসির শাহর বন্ধু ফারহান মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ করে। পুরো ঘটনা ভিডিও করা হয় বলে অভিযোগ।

অভিযোগকারী জানান, তিনি পুলিশের কাছে যাওয়ার হুমকি দিলে ইয়াসির তাকে বলেন, যা হওয়ার হয়ে গেছে। এরপর প্রস্তাব দেন, যদি তিনি ফারহানের সঙ্গে মেয়েটির বিয়ে দেন তাহলে ইয়াসির মেয়েটিকে একটি ফ্ল্যাট কিনে দেবেন এবং ১৮ বছর পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত মাসিক একটা ভাতা দেবেন।

ঘটনাটি নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আমরা শুনেছি যে আমাদের কেন্দ্রীয় চুক্তির মধ্যে থাকা এক খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ উঠেছে। পিসিবি বর্তমানে ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করছে এবং পুরো তদন্তের পরেই সংস্থার পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।’

২০১৪ সালে জাতীয় দলে অভিষেক হয় ইয়াসির শাহর। এখন পর্যন্ত ৪৬ টেস্টে ২৩৫ উইকেট নিয়েছেন। গড় ৩১.০৮। নিজের নামে টেস্টে শতরানও রয়েছে তার। ২০১৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্টে শতরান করেন ইয়াসির। সম্প্রতি বাংলাদেশ সিরিজে তিনি খেলেননি। আঙুলে চোটের কারণে মাঠের বাইরে তিনি।

দেশ রূপান্তর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 + four =