নতুন গান নিয়ে কুমার বিশ্বজিৎ  

দেশের প্রথিতযশা সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক ও সঙ্গীতশিল্পী নকীব খান ও কুমার বিশ্বজিৎ এবং বরেণ্য গীতিকার শহীদ মাহমুদ জঙ্গী। বহুবছর পর তারা তিনজন একসঙ্গে একই গানে সম্পৃক্ত হলেন। আর তাদের সঙ্গে নিজের স্টুডিওতে গানের রেকর্ডিং ও মিক্সিং-এর কাজটি করার মধ্যদিয়ে নিজের সম্পৃক্ততা রাখলেন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক বাপ্পা মজমুদার । বলা যায়, এরই মধ্যদিয়ে যেন একটি শ্রুতিমধুর সুরের নান্দনিক কাব্যকথার গানের সৃষ্টি হলো কুমার বিশ্বজিতের কণ্ঠে।

গানের নাম ‘সবকিছু হয়ে যায় শূন্য’। গানটি লিখেছেন শহীদ মাহমুদ জঙ্গী এবং সুর করেছেন নকীব খান। সঙ্গীতায়োজনও করেছেন নকীব খান নিজে। বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বনানীতে বাপ্পা মজুমদারের স্টুডিওতে গানটির রেকর্ডিং-এর কাজ সম্পন্ন হয়।

গানটি প্রসঙ্গে সুরকার-সঙ্গীত পরিচালক নকীব খান বলেন, ‘নিঃসন্দেহে গানটি করার সময় ভীষণ ভালোলাগা কাজ করছিলো। কারণ দীর্ঘদিন পর আমরা একসঙ্গে কাজ করলাম। চেষ্টা করেছি ট্রেণ্ডি গানই করতে। শ্রোতা দর্শকের ভালো লাগলেই আমাদের কষ্ট স্বার্থক হবে। অবশ্যই বাপ্পাকে ধন্যবাদ আমাদের পূর্ণ সহযোগিতা করার জন্য।’শহীদ মাহমুদ জঙ্গী বলেন, ‘বলা যায় আমাদের সবার পথচলা একসঙ্গেই। সেই পথে আবারো বহুদিন পর হাঁটলাম, এটা সত্যিই ভীষণ ভালোলাগার।’

গানটি প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘একই অঙ্গনে একসাথেই আছি আমরা। কিন্তু কেন যেন আমাদের একসঙ্গে কাজ করা হয়ে উঠছিলনা। যাইহোক অবশেষে একসঙ্গে বহুদিন পর একটি গান করা হলো, তাও আবার নকীব ভাইয়েরই উদ্যোগে। আমি খুবই আশাবাদী গানটি নিয়ে। অনেক ধন্যবাদ-কৃতজ্ঞতা বাপ্পার প্রতি। আমি মনেকরি এভাবেই আমরা একসঙ্গে কাজ করলে নতুন প্রজন্মের মধ্যেও আগ্রহ সৃষ্টি হবে একসঙ্গে কাজ করার।’

বাপ্পা মজমুদার বলেন, ‘গুনী তিনজন ব্যক্তিত্ব আমার স্টুডিওতে এসে কাজ করেছেন আমার উপর আস্থা রেখেছেন-এতে সত্যিই আমি পুলকিত।’ গানটির মিউজিক ভিডিও নির্মাণ শেষ ‘গান ছবি’ ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পাবে।

সারাবাংলা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 + 2 =