নিউ ইয়র্কের মাল্টিপ্লেক্সে ‌‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’

বিশ্ব বিনোদনের প্রধান কেন্দ্র হিসেবে ধরা হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক শহরের টাইমস স্কয়ারকে। সেখানকার বিখ্যাত মাল্টিপ্লেক্স হলো এএমসি এম্পায়ার। আর সেখানেই এবার মুক্তি পাচ্ছে বাংলাদেশের ছবি ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’!

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশি সিনেমার বিশ্ব পরিবেশক কানাডা-ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো-এর প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ অলিউল্লাহ সজীব সপ্তক।

আগামী ১৯ নভেম্বর টাইমস স্কয়ারসহ যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার মোট ১৪টি মাল্টিপ্লেক্সে বাণিজ্যিকভাবে মুক্তি পাচ্ছে মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের আলোচিত ছবিটি। ২০২০ সালে লকডাউন পেরিয়ে ২৩ অক্টোবর ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল দেশের প্রেক্ষাগৃহে। তখন দর্শক-সমালোচক মহলে ভালোই প্রশংসিত হয় ছবিটি। এবার সেই ছবিটি গেলো বিশ্বভ্রমণে।

বিশ্ব পরিবেশক মোহাম্মদ অলিউল্লাহ সজীব সপ্তক বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য এই চলচ্চিত্রটি উত্তর আমেরিকার অন্তত ১ লাখ দর্শকের কাছে পৌঁছানো। এরজন্য অন্তত ১০০টি মাল্টিপ্লেক্সে মুক্তি দিতে হবে। শুরুটা করছি আমেরিকা-কানাডার ১৪টি থিয়েটার দিয়ে। এই সংখ্যা ক্রমশ বাড়বে বলে আশা করছি।’

তিনি আরও জানান, বাণিজ্যিকভাবে ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ই হচ্ছে প্রথম কোনও বাংলাদেশি ছবি, যা মুক্তি পাচ্ছে টাইমস স্কয়ারের এএমসি এম্পায়ার-এ।

এদিকে দূরদেশ থেকে এমন খবরে উচ্ছ্বসিত এর নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। তার ভাষ্যে, ‘খবরটি আমার কাছে এখনও অবিশ্বাস্য লাগছে। মনে হলো, ভুল শুনছি। যাই হোক, সত্যিই যদি টাইমস স্কয়ার হয়ে পুরো বিষয়টা এমন হয়- তবে সেটি হবে মূলত বাংলা সিনেমার জয়। এখন বিশ্বাস হচ্ছে, উত্তর আমেরিকার লক্ষাধিক দর্শককে ছবিটি দেখানো সম্ভব। এরজন্য আমি কৃতজ্ঞতা জানাই স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো এবং অলিউল্লাহ সজীব ভাইয়ের প্রতি। আমার বিশ্বাস, বাংলাদেশের সিনেমা এখনও সঠিক পথেই আছে।’

‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ঘিরে এমন সুখবার্তা এবারই প্রথম বইছে, তা কিন্তু নয়। সেরা চলচ্চিত্র হিসেবে এরমধ্যে আন্তর্জাতিক জুরি পুরস্কার লাভ করেছে ১৯তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব থেকে। আর সেরা নির্মাতার পদক এসেছে লন্ডনে অনুষ্ঠিত ২১তম রেইনবো চলচ্চিত্র উৎসব থেকে।

বাংলা ট্রিবিউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × five =