নিয়ম না মেনে মুক্তি দেওয়া হলো ‘ফাতিমা’

ফাতিমা ও সুবর্ণা নামের দুই মেয়েকে নিয়ে ‘ফাতিমা’ সিনেমার গল্প। বানিয়েছেন ধ্রুব হাসান। গতকাল ২৪ মে সারা দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। একই দিন দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে আরও দুটি সিনেমা। সফিকুল আলমের ‘সুস্বাগতম’ ও বাবু সিদ্দিকির ‘ময়নার শেষ কথা’। প্রযোজক সমিতির নিয়ম অনুযায়ী, ঈদ ব্যতীত এক সপ্তাহে দুটির বেশি সিনেমা মুক্তি দেওয়ার সুযোগ নেই।

পরিবেশক সমিতির তথ্য অনুযায়ী, ২৪ মে মুক্তির জন্য সুস্বাগতম ও ময়নার শেষ কথা সিনেমা দুটির অনুমতি নেওয়া হলেও নেই ফাতিমার নাম। ফাতিমা মুক্তির বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির অফিস সচিব সৌমেন রায় বলেন, ‘২৪ মে মুক্তির জন্য সুস্বাগতম ও ময়নার শেষ কথা সিনেমা দুটি অনুমতি নিয়েছে। আর ফাতিমা মুক্তি পেয়েছে ১০ মে। আমাদের জানানো হয়েছে, তখন দুটি হলে মুক্তি দেওয়া হয়েছে সিনেমাটি।’

১০ মে ফাতিমা মুক্তির কথা জানালেও হলের নাম বা সিনেমা মুক্তি নিয়ে কোনো তথ্য জানাতে পারেননি সৌমেন রায়। অথচ, ৫ মে সংবাদ সম্মেলন করে নির্মাতার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, ২৪ মে সারা দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ফাতিমা। ২৪ তারিখ সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালিয়েছেন সিনেমার কলাকুশলীরাও।

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হয় সিনেমার নির্মাতা ধ্রুব হাসানের সঙ্গে। তিনি জানান, নিয়ম মেনেই সিনেমা মুক্তি দিয়েছেন তাঁরা। ১০ মে ফাতিমার প্রদর্শনী করার পর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে সিনেমাটি। তবে কোথায় এই প্রদর্শনী হয়েছে, তা জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন এই নির্মাতা। ধ্রুব হাসান বলেন, ‘অনুমতি নিয়েই আমরা সিনেমা মুক্তি দিচ্ছি। এই মাসের ১০ তারিখে মুক্তির ডেট নেওয়া হয়েছে। সে সময় প্রাইভেট স্ক্রিনিং করেছি, তাই পাবলিকলি জানানো হয়নি। আইনগতভাবে আমরা কোনো অন্যায় করিনি। স্ক্রিনিং করাটাই মূল কথা।’

কোথায় স্ক্রিনিং হয়েছে জানতে চাইলে ধ্রুব হাসান বলেন, ‘যারা রিলিজ করছে তাদের কাছে খবর নিতে পারেন। আমি তো রিলিজের দায়িত্বে নাই। যে সময় আমরা হলের বুকিং পেয়েছি, তখন মুক্তির তারিখ ঘোষণা করেছি। ১০ তারিখেই মুক্তি দিতে চেয়েছিলাম। হল না পাওয়ায় আমরা পিছিয়ে দিয়েছি। একটি হল পেয়েছিলাম, সেখানে প্রাইভেট স্ক্রিনিং করা হয়েছে। আর জাজ আরেকটি জায়গায় স্ক্রিনিং করেছে।’

ফাতিমা পরিবেশনার দায়িত্বে আছে বঙ্গ। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বঙ্গর প্রধান কনটেন্ট অফিসার মুশফিকুর রহমান মঞ্জুকে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বঙ্গের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সিনেমাটির একটা স্ক্রিনিং হয়তো হয়েছে, তবে হলে মুক্তি দেওয়া হয়নি।

যৌথভাবে ফাতিমার চিত্রনাট্য লিখেছেন ধ্রুব হাসান ও আদনান হাবিব। পরিচালনায় আদনান হাবিব। ফাতিমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তাসনিয়া ফারিণ। এ সিনেমা দিয়েই ঢালিউডে অভিষেক হয়েছে ফারিণের। আরও আছেন তারিক আনাম খান, ইয়াশ রোহান, সুমিত সেনগুপ্ত প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 + 15 =