নেইমার মনে করেন, এটাই তার শেষ বিশ্বকাপ

সম্প্রতি ডিএজিএনের বিশেষ এক অনুষ্ঠান ‘নেইমার অ্যান্ড দ্য লাইন অফ কিংস’-এ তিনি এ কথা জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘আমি মনে করি, এটাই আমার শেষ বিশ্বকাপ।’ তৃতীয় যাত্রার বাকি আর এক বছর। এ সময়ে তার মনে হচ্ছে না, আরও একটা বিশ্বকাপ খেলবেন, ২০২৬ বিশ্বকাপ পর্যন্ত লম্বা হবে তার ক্যারিয়ার। কেন কাতারেই হতে যাচ্ছে তার শেষ বিশ্বকাপ যাত্রা, সেটাও জানিয়েছেন তিনি। তাতে মিশে ছিল ফুটবলকে বিদায় বলে দেওয়ার ইঙ্গিতও! নেইমার বলেছেন, ‘আমি একে আমার শেষ হিসেবে দেখছি। কারণ আমি জানি না এরপর আমার ফুটবল খেলার মতো মানসিক শক্তি থাকবে কিনা।’

বয়স মাত্র ২৯। নেইমারের সামনে কমপক্ষে আরও পাঁচ বছরের ক্যারিয়ার পড়ে থাকার কথা। অন্তত লিওনেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোদের দিকে তাকালে তো তাই মনে হওয়া উচিত। দু’জনে তো যথাক্রমে ৩৪ আর ৩৬ বছর বয়সেও খেলে যাচ্ছেন দিব্যি! কিন্তু নেইমার ভাবছেন ভিন্নভাবে। জানালেন আগামী বছর কাতারে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপই হয়ে যেতে পারে তার শেষ!

ব্রাজিলিয়ান তারকা ফরোয়ার্ড এ পর্যন্ত সেলেসাওদের হয়ে খেলেছেন দুটো বিশ্বকাপে। ২০১৪ আর ২০১৮, দু’বারই তিনি ছিলেন ব্রাজিলীয়দের বিশ্বকাপ-স্বপ্নের নিউক্লিয়াস। কিন্তু দু’বারই ব্যর্থতায় শেষ হয়েছে তার অভিযান; প্রথমবার সেমিফাইনালে, পরেরবার কোয়ার্টার ফাইনালেই।

আগামী বিশ্বকাপে দলকে জেতানোর জন্য মরিয়া একটা চেষ্টাই করবেন নেইমার, জানালেন তিনি। বললেন, ‘সে কারণে আমি ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে, দলের হয়ে শিরোপা জেতার জন্য, আমার শৈশবের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য সবকিছুই করব। আর আশা করছি, আমি সেটা করতে পারব।’

নেইমার বিশ্বকাপের প্রথম স্বাদটা পেয়েছিলেন ২০১৪ সালে, নিজের মাঠ ব্রাজিলেই। তৎকালীন বার্সেলোনা তারকাকে ঘিরেই সাজানো হয়েছিল ব্রাজিলের শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনের রণকৌশল।

বাংলা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

fourteen − 5 =