নেটমাধ্যমে উন্মুক্ত হলো ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’ গ্রন্থ অবলম্বনে নির্মিত  দেশের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র ‘মুজিব আমার পিতা’উন্মুক্ত হলো নেটমাধ্যমে। গত শুক্রবার বেলা ৩টায় ছবিটি বিটিভি’র মাধ্যমে হয় ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার। একই সঙ্গে এটি বিটিভির ফেসবুক পেইজেও লাইভ প্রদর্শন হয়। এছাড়া রাত ১০টার দিকে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের ফেসবুক পেজেও ছবিটি উন্মুক্ত করা হয়। যার মধ্য দিয়ে ঐতিহাসিক এই সিনেমাটি সারা বিশ্বের কাছে উন্মুক্ত হলো।

ছবিটি প্রসঙ্গে জুনাইদ আহমেদ পলক আগেই বলেছিলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে তাঁর পিতাকে কীভাবে দেখেছেন, সেটা নিয়েই তিনি বইটি লিখেছেন এবং সেটার ওপর ভিত্তি করে ছবিটি নির্মাণ করা হয়েছে। আশাকরি, ছবিটি সবাইকে অনুপ্রাণিত করবে।’

এর আগে দ্বিমাত্রিক এ ছবিটি গত ১৬ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পায়। এরপর প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন (২৮ সেপ্টেম্বর) উপলক্ষে ১ অক্টোবর মুক্তি পায় প্রেক্ষাগৃহে। দুই মাসের মাথায় বিজয়ের মাস উপলক্ষে ঐতিহাসিক এই ছবিটি এবার নেটমাধ্যমে উন্মুক্ত হলো।

চলচ্চিত্রটিকে বলা হচ্ছে দেশের প্রথম ফিচার-লেংথ অ্যানিমেশন ফিল্ম। এ প্রসঙ্গে নির্মাতা সোহেল মোহাম্মদ রানা বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে ৪৫ মিনিট অতিক্রম করলেই সেটিকে ফিচার ফিল্ম বলা হয়। এর আগে আমরা বেশ কিছু অ্যানিমেশন বাংলাদেশে তৈরি হতে দেখেছি। সেগুলো ৪৫ মিনিটের নয়। আমাদের ছবিটির দৈর্ঘ্য ৪৯ মিনিট। এছাড়া আমরা সেন্সর বোর্ডের অনুমোদনসহ সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিয়েছি। সব মিলিয়ে এটাকে দেশের প্রথম অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম বলা যায়।’

পরিচালক জানান, তিনিসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের একদল প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থী এতে কাজ করেছেন।চলচ্চিত্রটি তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আইসিটি ডিভিশনের অর্থায়নে প্রযোজনা সংস্থা প্রোলেন্সার স্টুডিও থেকে নির্মিত হয়েছে।

বাংলা ট্রিবিউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

twenty − 9 =