পরাজয় দিয়ে শুরু হলো বাংলাদেশের টি২০ বিশ্বকাপ প্রস্তুতি মিশন

সালেক সুফী

ভালো খেলেও তীরে এসে তরী ডুবলো বাংলাদেশের। সিলেটের  নয়নাভিরাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলংকার বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে লড়াই করে ৩ রানে হেরে গেলো বাংলাদেশ। টস হেরে প্রথম ব্যাটিং করে ২০৬/৩ করেছিল বাংলাদেশ। শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার কারণে একসময় ৬৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ধুকছিলো বাংলাদেশ। বিশ্বস্ত রিয়াদ প্রথমে ৩১ বলে ৫৪ রান করে বাংলাদেশকে যুদ্ধে রেখেছিলো। দলে সুযোগ পেয়েই জাকের আলী অনীক ৩৪ বলে ৬৮ রানের জ্বলজ্বলে ইনিংস খেলে জয়ের প্রান্তে নিয়েছিল দলকে। দাসুন শানাকা নিয়ন্ত্রিত শেষ ওভারে স্বপ্নভঙ্গ হলো বাংলাদেশের। তীরে এসেও তরী ডুবলো ৩ রানে বাংলাদেশের। ২০৩/৮ করতে পারলো বাংলাদেশ। এহেন পরাজয় হৃদয় ভেঙে দেয়।  কিন্তু বলতেই হবে যোগ্যতর দল হিসেবে জিতেছে শ্রীলংকা।

শুরুতে চটজলদি আভিস্কা ফার্নান্ডো আর কামিন্দু মেন্ডিজের উইকেট তুলে নিলেও ভালো বোলিং করেনি বাংলাদেশ। কুশল মেন্ডিজ (৩৬ বলে ৫৯) এবং সাদিরা সামারাভিরা অপরাজিত ৪৮ বলে ৬১ রান করে ২০৬/৩ রানের মোটামুটি চ্যালেঞ্জিং টার্গেট ছুড়ে দেয়। জানিনা কেন মেহেদী মিরাজ অথবা অভিজ্ঞ তাইজুলকে দলে নেওয়া হয়নি। বাংলাদেশের বোলিং আদৌ উইকেট অনুযায়ী যুৎসই হয়নি। অবশ্যই কুশল এবং সামারাভিরাকে ভালো ব্যাটিং করার কৃতিত্ব দিবো কিন্তু বাংলাদেশ বোলিং এলোমেলো ছিল।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ পাওয়ার প্লেতে লিটন, সৌম্য এবং হৃদয়ের উইকেট হারিয়ে খাবি খাচ্ছিলো। শান্ত নিজেও উইকেটে স্থিতু হতে পারেনি। কোনঠাসা অবস্থান থেকে বাংলাদেশকে উদ্ধার করে সাইলেন্ট কিলার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৩১ বলে ৫৪ রানের ইনিংস উপহার দিয়ে। কিন্তু দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখায় আলিস ইসলামের ইনজুরির সুবাদে শেষ মুহূর্তে স্কোয়াডে সুযোগ পাওয়া জাকির আলী  অনিক। ৩৪ বলে ৬৮ রানের ইনিংসটি জয় পরাজয়ের বাবদান কমায় ৩ রানে। শেষ ওভারটি দাসুন সানাকা নিয়ন্ত্রিত বল করে রিশাদ হোসেন এবং জাকেরের উইকেট তুলে নিয়ে জয় ছিনিয়ে নেয়। সার্বিক বিবেচনায় বলতে হবে এদিনের তুলনামূলক ভালো খেলা দল যোগ্যতার ভিত্তিতে জয় পেয়েছে। আমি ফর্মে থাকা মোহাম্মদ নাঈম এবং মেহেদী মিরাজকে না খেলানোর সিদ্ধান্ত মানতে পারলাম না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

19 − 12 =