বাংলাদেশের খেলা মানে জামালখানে মানুষের মেলা

চট্টগ্রাম নগরীতে বিনোদনের জায়গা বলতে হাতেগোনা কয়েকটি স্পট। বিশেষকরে বিকেলবেলায় অফিস ফেরত মানুষ কিংবা ইট পাথরের চার দেয়ালে বন্দি মানুষগুলো একটু মুক্ত হাওয়ার আশায় ঘর ছেড়ে বাইরে আসেন। কিন্তু যাওয়ার কোন জায়গা নেই বললেই চলে। একেবারে নেই তা নয়। এই যেমন জামালখান মোড়। সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমনের কল্যাণে বদলে যাওয়া জামালখানে এখন বিকেল হতেই নানান বয়সী মানুষের ‘আড্ডাখানা’। সেটি মনুষ্যমেলায় পরিণত হয় যেদিন বাংলাদেশের কোন খেলা থাকে এবং সেটি মোড়ে স্থাপিত বিশাল জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখানো হয়।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অন্যান্য দিনের খেলার মতো ব্যতিক্রম হয়নি আফগানবধের দিনেও। বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানের খেলা দেখতে বিকাল থেকেই জমায়েত হতে শুরু করে খেলা পাগল মানুষ। উপচেপড়া ভীড়ে ছিলেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশা ও বয়সের মানুষ। এসেছিলেন বড় পর্দায় টাইগারদের আফগানবধের সাক্ষী হতে। জামালখান মোড় পরিণত হয় একখণ্ড সাউদাম্পটনের রোজভোল্ট, কখনো ওভাল কখনো বা সমারসেটের টনটন।

টানটান উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ২৬২ রান সংগ্রহ করে টাইগাররা। শুরুতে লিটন দাসের বিতর্কিত ক্যাচ আউট নিয়ে অনেকেই বিমর্ষ হয়ে পড়েন। ১৭ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৬ রান করেন লিটন দাস। এরপর ২৩ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর ৬১ বলে ৫১ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। প্রতিটি চার এবং ছক্কায় উল্লাসে ফেটে পড়ছিলেন দর্শকরা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

14 − two =