বাপ্পী খানের কথায় আরমান খান, উৎসর্গে আইয়ুব বাচ্চু

এলআরবি’র উল্লেখযোগ্য গীতিকবিতা মানে বাপ্পী খান। আইয়ুব বাচ্চুর কণ্ঠে বেশিরভাগ বিখ্যাত গানের রচয়িতা তিনি। অন্যদিকে বিখ্যাত সংগীত পরিচালক আলম খানের যোগ্য উত্তরসূরি আরমান খান। আইয়ুব বাচ্চুর জন্য সুর বেঁধেছেন অনেক গানের।

নির্মমতা এই, আইয়ুব বাচ্চু মাঝপথেই ফিরলেন না ফেরার দেশে। যোগ্যতম প্রার্থীর অভাবে বাপ্পী খানও মনমরা। আর আরমান খান তো গত দশ বছরই গান থেকে দূরে।

আশার কথা, এবার এই তিন জনই একসুতোয় বেঁধে নিলেন নিজেদের। বাপ্পী খানের কথায়, আরমান খানের সুর-সংগীত-কণ্ঠে বাঁধলেন নতুন গান। নাম দিয়েছেন ‘আসা যাওয়া’। আর এটি উৎসর্গ করলেন আইয়ুব বাচ্চুকে।

এই উদ্যোগ প্রসঙ্গে আরমান খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গান থেকে দূরে আছি। কিন্তু গান তো আমাকে ছাড়েনি। তাই দূর সিলেটে অন্য একটি পেশায় থেকেও সারাক্ষণ সংগীত কিলবিল করে মাথায়। পুরনো মুখগুলো সামনে আসে কারণে অকারণে। তেমনই একজন বাচ্চু ভাই। যার সঙ্গে আমার অসংখ্য কাজ হয়নি ঠিকই, কিন্তু একটা গোপন মায়ার সম্পর্ক রয়েছে। তো কিছু দিন আগে হঠাৎ মনে হলো, ভাইয়ের জন্য তো কিছু করতে পারিনি, এবার একটা গান করি। সেই ভাবনা থেকেই কাজটি করা।’

আরমান খান জানান, এরমধ্যে গানটির রেকর্ডিং হয়ে ভিডিও শুটিংও হয়েছে। এটি নির্মাণ করেছেন রায়হান খান। আইয়ুব বাচ্চুর তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকীর দিনে (১৮ অক্টোবর) গানটি উন্মুক্ত হচ্ছে জি-সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে।

গানটি সৃষ্টির প্রেক্ষাপট প্রসঙ্গে আরমান খান বলেন, ‘‘বাচ্চু ভাইকে নিয়ে কাজ করবো, এমন সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করার পর প্রথম ফোনটি দিলাম বাপ্পী খানকে। কারণ, আমার জানামতে এলআরবি’র বেশিরভাগ বিখ্যাত গান এই মানুষটির লেখা। ফলে বাচ্চু ভাইকে স্পর্শ করতে হলে উনার লেখাটা লাগবে। বাপ্পী ভাইকে বলার পর, তিনিও আবেগতাড়িত হলেন। বললেন, ‘আজকাল এভাবে তো কেউ আর বলে না!’ এরপর তিনি ‘আসা যাওয়া’ লিরিকটি দিলেন। আমি চেষ্টা করেছি বাচ্চু ভাইয়ের আদলে গানটি তৈরি করতে। যে কেউ শুনলেই সেটি টের পাবেন। এটাও অনেকে ভাববেন, গানটি বাচ্চু ভাই গাইলেই অসাধারণ হতো। কিন্তু সেটি তো আর সম্ভব নয়।’’

আরমান খানের সুরে ৯০ দশকে আইয়ুব বাচ্চু গেয়েছেন বেশ ক’টি জনপ্রিয় গান। এরমধ্যে ‘দোস্ত দুশমন’ অ্যালবামে ৫টি আর ‘পরীক্ষা’য় ৩টি।

আরমান খান ঢাকার স্টুডিও সেটআপ আর রেকর্ডিংয়ের ব্যস্ত জীবন ফেলে ৮ বছর যাবৎ অবস্থান করছেন সিলেটের গ্র্যান্ড সুলতান হোটেলে। হোটেলটির সহকারী মহাব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করছেন নিষ্ঠার সঙ্গে। হোটেল কেন্দ্রিক ব্যস্ততার ফাঁকে আত্মার টানে গানটাকে চর্চায় রেখেছেন হোটেল রুমে রাখা নিজস্ব গিটার-পিয়ানোতে। ১০ বছরের বিরতি ভেঙে গত ফেব্রুয়ারিতে তিনি সর্বশেষ প্রকাশ করেন ‘বন্ধু’ শিরোনামে একটি গান।

ঢাকা ট্রিবিউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

seven − two =