‘সূচনা’ নিয়ে মঞ্চে চার অভিনেত্রী

বাংলাদেশের মঞ্চনাটকের অন্যতম জনপ্রিয় নাম মিতা চৌধুরী। গত বছরের ২৯ জুন প্রয়াত হন তিনি। এর আগের বছর মারা যান তাঁর স্বামী শাহীদুর রহমান। এ দুজনকে স্মরণ করে ‘মুক্তি নাট্যোৎসব’ আয়োজন করেছে তাঁদের হাতে গড়া রেপার্টরি নাট্য সংগঠন স্টেইজ ওয়ান ঢাকা।

গতকাল গান-গল্প-তথ্যচিত্রে তাঁদের স্মরণ করার পাশাপাশি রাজধানীর সেগুনবাগিচার কচিকাঁচা মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হয় নাটক ‘দ্য জু স্টোরি’। আজ মিতা চৌধুরীর প্রয়াণদিবসে একই স্থানে সন্ধ্যা ৭টায় মঞ্চস্থ হবে আরেকটি নাটক ‘সূচনা’। এতে দেখা যাবে চার অভিনেত্রীকে—ওয়াহিদা মল্লিক জলি, চিত্রলেখা গুহ, নাজনীন হাসান চুমকী ও তাহমিনা সুলতানা মৌ।

আবুল হায়াত রচিত এ নাটকের নির্দেশনা দিয়েছেন রহমত আলী। গল্পে দেখা যাবে, মহান মুক্তিযুদ্ধের আগে চার বন্ধু শেলী, সবিতা, রাশেদা ও তানিয়া ছিল হরিহর আত্মা। পরবর্তী সময়ে তারা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। অনেক বছর পর শেলী তার বাগানবাড়িতে বাকি তিন বন্ধুকে ডেকে আনে। উদ্দেশ্য, একটা পুনর্মিলন। শুরুতে পুনর্মিলনটাই বড় হয়ে দেখা দেয়। একে অপরকে নিয়ে ঠাট্টা করে। মেদ, অসুখ—এসব নিয়ে হাসি-তামাশা হয়। গল্পের শেষে শেলী তার তিন বান্ধবীকে এমন এক সত্যের মুখোমুখি করে, যার জন্য কেউই প্রস্তুত ছিল না।

২০১৩ সালের ২৫ মার্চ নাটকটির প্রথম মঞ্চায়ন হয়। আজ দেখা যাবে ২৫তম মঞ্চায়ন। শুরু থেকেই নাটকটির সঙ্গে যুক্ত আছেন নাজনীন হাসান চুমকী। তিনি বলেন, ‘আজকের শো করার মূল উদ্দেশ্য, মিতা আপাকে স্মরণ করা। তিনি এ নাটকের শেলী চরিত্রটি করতেন। দ্বিতীয় দফায় তিনি যখন ইংল্যান্ডে যান, তখন আমি এ চরিত্র করা শুরু করি। আর আমার চরিত্রটি (তানিয়া) করতেন শামীমা নাজনীন। এবার তাঁর জায়গায় যুক্ত হয়েছেন তাহমিনা সুলতানা মৌ।’ সূচনার সংগীত করেছেন রহমত আলী, ডিজাইনার ডমিনিক গোমেজ ও পোশাক পরিকল্পনায় ওয়াহিদা মল্লিক জলি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

thirteen − seven =