এবার খেতাব ফিরিয়ে দিলেন মিস টিন ইউএসএ রানার-আপ

যুক্তরাষ্ট্রের সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজকদের বিরুদ্ধে প্রতিযোগী ও বিজয়ীদের হয়রানির অভিযোগ যেন বাড়ছেই। কয়েক দিন আগে ‘মানসিক স্বাস্থ্যের’ কারণ দেখিয়ে সেরা সুন্দরীর মুকুট ফিরিয়ে দেন মিস ইউএস নোয়েলিয়া ভয়েট। তারপর খেতাব ফেরান মিস টিন ইউএস সুন্দরী উমাসোফিয়া শ্রীবাস্তবা। এবার খেতাব ফেরালেন প্রতিযোগিতার প্রথম রানার-আপ স্টেফানি স্কিনার।

স্টেফানি স্কিনার নিউ ইয়র্ক পোস্টকে বলেন, ‘সমস্ত পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এটিই সঠিক সিদ্ধান্ত বলে মনে হয়েছে। আমি ১২ বছর বয়স থেকে এর জন্য পরিশ্রম করেছি। জন্মদিন, বিভিন্ন ইভেন্ট এমনকি স্কুলের প্রশিক্ষণও এর জন্য ত্যাগ করেছি। আমার সব সময় উৎসর্গ করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘সম্প্রতি আমি মিস টিন ইউএসএ ২০২৩ এর খেতাব প্রত্যাখ্যান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটি একটি সহজ সিদ্ধান্ত ছিল না একেবারেই। কিন্তু আমি আমার স্বপ্নের প্রতি সম্মানের আশা করি। কারণ এই টাইটেল আমি কখনোই আমাকে জোর করে দিতে বলিনি।’

কারণ খোলাসা না করলেও স্কিনার জানিয়েছেন, থাইল্যান্ডে একটি গবেষণাগারে নিজের ভবিষ্যৎ গড়ার সুযোগ পেয়েছেন তিনি, এর জন্য পুরো গ্রীষ্মকাল তাঁকে সেখানে থাকতে হবে।

নোয়েলিয়া ও উমাসোফিয়ার খেতাব ফিরিয়ে দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যদিও, আমি সঠিক কারণ জানি না কেন তাঁরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, কিন্তু আমি তাঁদের অফুরন্ত ভালোবাসা এবং সমর্থন পাঠাচ্ছি। আমি এটা জানি আমার মূল মূল্যবোধ হল সততা, সম্মান এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণভাবে আমি সব সময় নারীর পাশে দাঁড়াব’।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মে ২০২৩ সালের মিস টিন ইউএসএ উমাসোফিয়া শ্রীবাস্তবা মুকুট ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানান। খেতাব ফিরিয়ে দেওয়ার পেছনে ‘আয়োজক সংস্থার কর্মকাণ্ডের সঙ্গে নিজের মূল্যবোধ সাংঘর্ষিক হওয়ায়’ কথা তুলে ধরেন উমাসোফিয়া শ্রীবাস্তবা। এর কদিন আগে ‘মানসিক স্বাস্থ্যের’ কারণ দেখিয়ে সেরা সুন্দরীর মুকুট ফিরিয়ে দেন মিস ইউএস নোয়েলিয়া ভয়েট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

seven − 1 =