রণবীরকে শ্বশুর-শাশুড়ি আড়াই কোটি টাকার ঘড়ি দিলেন

বলিউডের ভাট পরিবারের ছোট কন্যা এখন কাপুর পরিবারের ঘরণী। আদরের মেয়ে আলিয়া ভাটকে বিয়ে দিয়ে স্বাভাবিকভাবেই আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না বাবা মহেশ ভাট। তাই মেয়ের জামাই রণবীরকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত মহেশ ভাট ও রণবীরের ছবি সবার মন ছুঁয়েছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে রণবীরকে বুকে জড়িয়ে ধরে আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছেন বর্ষীয়ান নির্মাতা মহেশ ভাট। ধরে রাখতে পারেননি চোখের পানি। এভাবেই যেন মেয়ের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিলেন রণবীরকে।

সামাজিক মাধ্যমে ছবি দুইটি শেয়ার করে মহেশ ভাটের বড় মেয়ে পূজা ভাট লেখেন, ‘শব্দের কী প্রয়োজন যখন একজনের ক্ষমতা রয়েছে মন থেকে কথা বলবার এবং অন্যজনের সেটা বুঝে নেওয়ার!’

বৃহস্পতিবার রণবীরের বান্দ্রার বাড়ি ‘বাস্তু’তে বসেছিল এই আলোচিত বিয়ের আসর। ওইদিন আংটি বদলও সারেন রণবীর-আলিয়া।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, বিয়েতে জামাই রণবীরের জন্য সবচেয়ে দামি উপহারটি দিয়েছেন আলিয়ার মা সোনি রাজদান। তিনি রণবীরকে একটি দামী ব্র্যান্ডের হাতঘড়ি দিয়েছেন যা ভারতে পাওয়া যায় না। ঘড়িটির দাম প্রায় আড়াই কোটি রুপি!

এদিকে, রণবীরের কাছ থেকে একটি বিরাট হীরের আংটি উপহার হিসাবে পেয়েছেন আলিয়া। একই সঙ্গে তাদের বিয়েতে উপস্থিত অতিথিদের রির্টান গিফটও দেওয়া হয়েছে। উপহার হিসাবে প্রত্যেক অতিথিকে দেওয়া হয়েছে কাশ্মীরি শাল।

মহেশ ভাট ও সোনি রাজদানের দুই মেয়ে আলিয়া ভাট ও শাহিন ভাট। অন্যদিকে মহেশ ও তার প্রথম স্ত্রী কিরণ ভাটের দুই সন্তান পূজা ও রাহুল ভাট। মহেশের দুই পক্ষের সন্তানই আলিয়ার বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন।

বাংলানিউজ

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

12 − five =