রূপকথার ক্রিকেট খেলে আফিফ-মিরাজ এনে দিলো মাইলস্টোন জয়

সালেক সুফী: মহান একুশের মাথা নত না করার চেতনা স্থাপন করেই মাইল ফলক ম্যাচ জয় করলো আফিফ-মিরাজ জুটি। সিমিং সুইংগিং উইকেটে বাংলাদেশের আটো ষাট বোলিংয়ের মুখে ২১৫ রানের মামুলি সংগ্রহ করেছিল। ইদানিং সাদা বলে ভালো খেলতে থাকা আফগানিস্তান। অভিজ্ঞ উঁচু মানের ব্যাটিং নিয়ে হেসে খেলে জয় করবে বাংলাদেশ বলেই সবার ধারণা ছিল। কিন্তু বিধি বাম।  ফজলুল হক ফারুকী নামের তরুণ আফগান পর পর আঘাত হেনে কোণঠাসা করে দিলো বাংলাদেশকে। একে একে লিটন, তামিম, মুশফিক, রাব্বি, সাকিব, রিয়াদ ডাগ আউটে ফিরলো। স্কোরবোর্ডে তখন মাত্র ৪৫। বাংলাদেশের শুভাকাঙ্ক্ষীদের মনে তখন শোচনীয় পরাজয়ের শংকা বাসা বেঁধেছে।  দেয়ালে পিঠ রেখে ৭ম উইকেট জুটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর সংগ্রাম শুরু করলো আফিফ ধ্রুব, মেহেদী মিরাজ।  এরপর যা কিছু হলো সেটি ক্রিকেট রূপকথা।

উইকেটে বল গ্রিপ করছিলো। আর এমন উইকেটে রাশিদ খান, মুজিবর রহমান, মোহাম্মদ নবি বিশ্বসেরা। আফিফের ইনিংসের শুরুতেই ছিল কাল বৈশাখীর রুদ্র মাতন।  মিরাজ শুরুতে একটু ধীর স্থির। ভয়হীন ব্যাটিং করে ৭ম উইকেট জুটিতে অজেয় ১৭৪ রানের নতুন মাইল ফলক স্থাপন করলো ওরা।  ওদের আগে আর কোনো জুটি স্কোর তাড়া করে এভাবে ম্যাচ জয় করেনি। আগের রেকর্ডটি ছিল ইংল্যান্ডের জস বাটলার-ক্রিস ওয়েকস জুটির, শ্রীলংকার বিরুদ্ধে নটিংহামে।

রেকর্ড সৃষ্টি হয় ভেঙে যাবার জন্য।  হয়তো এই রেকর্ডটিও একদিন শীঘ্র বা দীর্ঘদিন পরে ভেঙে যাবে। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেটের বাঁক বদলের ক্ষণে ঐতিহাসিক এই জয় ক্রিকেট সমাজকেই ভীষণ উজ্জীবিত করবে। কোনো প্রশংসা আফিফ-মিরাজের জন্য পর্যাপ্ত হবে না।

আইসিসি  টি২০বিশ্বকাপ ব্যর্থতা, পাকিস্তানের সঙ্গে মহান বিজয়ের মাসে ভূমিধস পরাজয়ের পর চলতি সিরিজ নিয়েও ক্রিকেট সমাজ উদ্বিগ্ন ছিল। মামুলি টার্গেট তাড়া করার সময় সূচনায় কোণঠাসা অবস্থান থেকে আগামীর প্রত্যাশা দুই নবীন প্রতিভা যেভাবে জয় ছিনিয়ে অন্য সেটি ক্রিকেটে বাঁকবদলের ইঙ্গিত দিলো। ব্যাটিং শুধু নয় মুস্তাফিজ, তাসকিন, শরিফুল, মিরাজ বোলিং করেছে নিজেদের সবকিছু নিবেদন করে। ওরাও সবাই নবযুগের সারথি।

নিজেদের  ধরে রাখতে পারলে এই তরুণরা অচিরেই মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক, রিয়াদদের উত্তরসূরি হিসাবে গড়ে উঠবে। প্রয়োজন পরিকল্পিত পরিচর্যা, অনুপ্রেরণা, পেশাদারি ব্যাবস্থাপনা। বিজয়ী বীরদের প্রাণঢালা অভিনন্দন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

20 − twelve =