মিলিয়নের রেকর্ড করল ‘ইনসাইড আউট টু’

রাইলি নামের এক ছোট্ট মেয়ের গল্প নিয়ে ২০১৫ সালে মুক্তি পায় অ্যানিমেশন সিনেমা ‘ইনসাইড আউট’। ডিজনি ও পিক্সারের এ সিনেমা তৈরি হয়েছিল ১৭৫ মিলিয়নে, ব্যবসা করে ৮৫০ মিলিয়নের বেশি। ৯ বছরের মাথায় গত ১৪ জুন বিশ্বব্যাপী মুক্তি পেয়েছে এর সিক্যুয়েল ‘ইনসাইড আউট টু’। শুরু থেকেই বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে রাইলির এই নতুন গল্প।

দুই শ মিলিয়নে তৈরি সিনেমাটি মাত্র ১৯ দিনে আয় করেছে ১ বিলিয়ন ডলার। হলিউডের অ্যানিমেশন সিনেমার ইতিহাসে এটিই দ্রুততম বিলিয়নের রেকর্ড। এর আগে এ রেকর্ডের মালিক ছিল ‘ফ্রোজেন টু’, ২৫ দিনে ১ বিলিয়ন ঘরে তুলেছিল সিনেমাটি।

হলিউড রিপোর্টার জানিয়েছে, শুধু উত্তর আমেরিকার বাজারে ইনসাইড আউট টু ব্যবসা করেছে ২৬৯ দশমিক ৩ মিলিয়ন ডলার। উত্তর আমেরিকা বাদে সারা বিশ্বে আয় করেছে ৫৪৫ দশমিক ৫ মিলিয়ন। সব মিলিয়ে বক্স অফিসে মাত্র ১৯ দিনে ঘরে তুলেছে ১ মিলিয়ন ডলারের বেশি। অভাবনীয় সাফল্য এসেছে ভারত থেকেও (১০১ দশমিক ৪৮ কোটি রুপি)।

হলিউডে এটিই এ বছরের প্রথম বিলিয়ন। এর আগে গত বছর এ সাফল্যের অধিকারী হয়েছিল মার্গো রবি অভিনীত ‘বার্বি’। ইনসাইড আউট টুর এই সাফল্য নিয়ে ডিজনির এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট টনি চেম্বারস বলেন, ‘এত অল্প সময়ের মধ্যে এই মাইলফলক ছুঁতে পেরে আমরা রোমাঞ্চিত। এটি আবার প্রমাণ করল, ভালো সিনেমা দেখার জন্য দর্শক সব সময়ই আগ্রহী।’

কেসলি মান পরিচালিত ইনসাইড আউট টুর গল্পে দেখানো হয়েছে, ছোট্ট রাইলি এখন কিশোরী। সম্প্রতি পালন করা হয়েছে তার ১৩তম জন্মদিন। বদলেছে তার সঙ্গে থাকা পাঁচ ধরনের আবেগও। আনন্দ, দুঃখ, রাগ, ভয় ও বিতৃষ্ণা—এই অনুভূতিগুলো বিভিন্ন চরিত্র হয়ে আসে তার সামনে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

13 − eleven =