রেকর্ড নয়, রুটের কাছে প্রধান বিষয় দলের জয়

গতকাল শনিবার  শেষ হওয়া  লীডস টেস্টে ভারতকে ইনিংস ও ৭৬ রানের হারিয়েছে স্বাগতিক  ইংল্যান্ড। লর্ডস টেস্ট হেরে পিছিয়ে পড়লেও লীডস টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা এনেছে ইংলিশরা। এই জয়ে অধিনায়ক হিসেবে রেকর্ড গড়েছেন জো রুট। টেস্টে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি জয় এখন রুটের। ৫৫ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে ২৭ জয়ের স্বাদ নিয়েছেন রুট। এতে পেছনে পড়ে গেছেন মাইকেল ভন, অ্যালিষ্টার কুক-এন্ড্রু স্ট্রসদের মত অধিনায়ক। অধিনায়ক হিসেবে ভন ২৬, কুকের ২৪ ও স্ট্রস ২৪ টেস্টে জয় পেয়েছেন।

তবে এমন সব রেকর্ড বা ব্যক্তিগত অর্জন বড় নয় রুটের কাছে। দিন শেষে দলের জয়কে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন রুট। তিনি বলেন, ‘রেকর্ড, ব্যক্তিগত অর্জন অনেক কিছুই হবে, তবে সেগুলো ক্যারিয়ার শেষে বিবেচনা করাই ভালো। এখন দলের জয়ই আমার কাছে সবচেয়ে প্রধান বিষয়। দলকে জেতানোই মুল  লক্ষ্য। ভারতের বিপক্ষে এই জয়টি অনেক বেশি প্রয়োজন ছিলো। সিরিজে সমতা আনতে পেরে আমরা খুশি।’

ইংলিশ  পেস  তোপে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৭৮ রানে অলআউট হয় ভারত। চতুর্থ দিন মাত্র ৬৩ রানে ভারতের শেষ ৮ উইকেট তুলে নেন জেমস এন্ডারসন-ওলি রবিনসনরা। তাই বোলারদের প্রশংসা করলেন রুট। তিনি বলেন, ‘দারুণ পারফরমেন্স। এন্ডারসন-রবিনসন দুর্দান্ত করেছে। তাদের সাথে দারুন বল করেছে স্যাম কারান ও ক্রেইগ ওভারটন। আমরা জানতাম পেসাররাই পথ দেখাবে। তবে প্রয়োজন ছিল আত্মবিশ্বাসের, ধারাবাহিকতার। সত্যি বলতে, পেসাররাই এই ম্যাচের ফল তৈরি করে দিয়েছে।’

শুধুমাত্র বোলারদের নয়, ব্যাটসম্যানদেরও প্রশংসা করেছেন রুট। তিনি বলেন, ‘প্রথম দুই টেস্টে ব্যাটসম্যানরা নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি। কিন্তু এ ম্যাচে দলের প্রয়োজন মিটিয়েছে  ররি বার্নস-হাসিব হামিদ-ডেভিড মালানরা। প্রথম ইনিংসে বড় লিড দরকার ছিলো। যা আমরা আদায় করে নিতে সক্ষম হই।

ভারতের বিপক্ষে এ সিরিজে টানা তিন টেস্টে সেঞ্চুরি করেন রুট। নটিংহ্যামে ১০৯, লর্ডসে অপরাজিত ১৮০ ও লীডসে ১২১ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ঘরের মাঠে সেঞ্চুরি করতে পেরে খুশি রুট, ‘অনেক সময় অল্পের জন্য শতরান মিস করেছি। ঘরের মাঠে শতরান করার আনন্দই আলাদা। আশা করছি, এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে পারবো।’

আগামী ২ সেপ্টেম্বর থেকে ওভালে শুরু হবে সিরিজের চতুর্থ টেস্ট।

বাসস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ten − ten =