লালন ব্যান্ডে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন দলনেতা তিতি

অভিমান ভেঙে ‘লালন’ ব্যান্ডে ফিরছেন দলনেতা ও ড্রামার থেইন হান মং তিতি। আজকের পত্রিকাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি। গত মার্চে লালন ব্যান্ড ছাড়েন তিতি। ‘ব্যান্ডের চেয়ে ব্যক্তির প্রাধান্য’ বেড়ে যাওয়ার কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নেন বলে জানিয়েছিলেন এই ড্রামার। এবার দিলেন ফেরার ইঙ্গিত, তবে তার আগে চেয়েছেন ব্যান্ডে সৃষ্টি হওয়া সংকটগুলোর টেকসই সমাধান।

লালন ব্যান্ডে ফেরার বিষয়ে আজকের পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘গত এক সপ্তাহ ধরে ব্যান্ডের কয়েকজন সদস্য আমার সঙ্গে বসতে চাচ্ছিলেন। তিন দিন আগে তাদের সঙ্গে বসেছিলাম। তবে সুমি (ভোকাল) খুলনায় থাকায় সে মিটিংয়ে থাকতে পারেনি। সবাই আমার অভিযোগগুলো সমাধানের চেষ্টা করছে এবং ব্যান্ডে আমাকে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারেও কাজ করছে। সবকিছু ঠিক থাকলে হয়তো শিগগিরই আবার ফিরতে পারি।’

ব্যান্ডে ফিরলেও তিতির মনে এখনো শঙ্কা রয়েছে। যে অভিযোগগুলো নিয়ে ব্যান্ড ছেড়েছিলেন, চান না তার পুনরাবৃত্তি। তিতি বলেন, ‘যে বিষয়গুলো নিয়ে সংকট, সেসবের টেকসই সমাধান বেশ কঠিন হবে বলেই মনে হয়। তবে যা–ই হোক ভালো কিছু চেষ্টা করাটাই তো আমাদের কাজ। আশা করব বিষয়গুলোর দীর্ঘমেয়াদি সমাধান হবে।’

তিতি ব্যান্ড ছাড়া পর থেকেই বন্ধ আছে লালন ব্যান্ডের সব কার্যক্রম। নতুন কোনো শোতে দেখা যায়নি ব্যান্ডটিকে। কবে থেকে আবার মঞ্চে ফিরছে লালন, এ বিষয়ে তিতি বলেন, ‘কিছুটা সময় লাগবে। এর সঙ্গে বেশ কিছু প্রক্রিয়া জড়িত। একটা ব্যান্ডে অনেক ডিপার্টমেন্ট আছে, নতুন করে সবকিছু শুরু করতে হবে আবার। তবে খুব শিগগিরই প্র্যাকটিসে ফিরব বলে আশা রাখি।’

দীর্ঘ ১৭ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে গত মার্চে লালন ব্যান্ড ছাড়েন দলনেতা ও ড্রামার থেইন হান মং তিতি। সবশেষ গত ৯ মার্চ খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) কনসার্টে শেষবার লালন ব্যান্ডের সঙ্গে বাজান তিতি।

লালন ব্যান্ডে ভাঙন: সুমির বিরুদ্ধে তিতির বিস্তর অভিযোগ, দাম্পত্য সম্পর্কও দোদুল্যমানলালন ব্যান্ডে ভাঙন: সুমির বিরুদ্ধে তিতির বিস্তর অভিযোগ, দাম্পত্য সম্পর্কও দোদুল্যমান

ব্যান্ড ছাড়ার বিষয়ে তখন তিতি আজকের পত্রিকাকে জানিয়েছিলেন, সুমির জীবন দর্শনের সঙ্গে দ্বান্দ্বিক অবস্থানের কারণেই এ সিদ্ধান্ত নেন তিনি। বিভিন্ন সময়ে সুমির স্বেচ্ছাচারিতায় ব্যান্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও জানান তিনি। ‘ব্যান্ডের চেয়ে ব্যক্তির প্রাধান্য’—বিষয়টি তিতিকে তখন কষ্ট দিয়েছিল। এরপরই তিনি সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

eleven − nine =