শিল্পকলা মঞ্চে ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’

মঞ্চে আবার প্রদর্শিত হতে চলেছে নাটক ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’। ‘স্পেস এ্যান্ড এ্যাক্টিং রিসার্চ সেন্টার’ প্রযোজিত নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন অভিনেতা ও নির্দেশক আশীষ খন্দকার। নাটকটির ৪৭ ও ৪৮তম প্রযোজনার (পেন্ডামিক ভার্সন) দুটি শো মঞ্চস্থ হতে যাচ্ছে বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে সন্ধ্যা ৭টায় এবং রাত ৮টায়।

‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’ নাটকের দুই আগন্তুকের চরিত্র দু’টির উদ্ভব হয়েছে এক শিশুর আঁকা একটি ছবি থেকে। ছবিটি এঁকেছিলেন নির্দেশক আশীষ খন্দকারেরই কন্যা মৃন্ময়ী। অন্ধকারে হেঁটে চলা দু’টো লোক ও আঁকিয়ে মৃন্ময়ীই তার ভাবনার জগতে সৃষ্টি করেছে ‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’।

নাটকটি প্রসঙ্গে আশীষ খন্দকার বলেন, ‘একদিন আমি আমার মেয়ে মৃন্ময়ীর সাথে বসে ছিলাম। সে তেলরং এ একটা ছবি আঁকছিল- দু’টো লোক অন্ধকারে হেঁটে চলেছে। এই নাটকটার বীজ তখনই আমার মাথায় এসেছে। অনেকটা সময় গবেষণার পর ঐ ছোট্ট একটা বীজ থেকে নাটকের পটভূমিটা দাঁড় করাই। আমি বিস্মিত হয়ে মৃন্ময়ীর ব্যাখ্যাটাও শুনেছিলাম-ও রূপকথার গল্প থেকে এই চরিত্র দু’টো কে এঁকেছে, আর অদ্ভুতভাবে এই গল্প প্রাচ্য পাশ্চাত্যে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকা চিরায়ত রুপকথার গল্প, যে গল্পটা আবার ঘুরিয়ে দেখলে দেখতে পাই, আমাদের এই ঘুণে ধরা, পঁচা গলা বাস্তবতা। এর রূপকগুলো মঞ্চে প্রাণ পায় অভিনেতার বিভিন্ন কার্যকলাপে।’

‘দুই আগন্তুক বনাম করবী ফুল’ নাটকে অভিনয় করেছেন- ফরহাদ হোসাইন শাওন, তোতো তীমথিয়, মানিসা অর্চি এবং ওমর ফারুক। সংগীতে জাহিদ মাহমুদ, আলোক নির্দেশনায় আলী আফসার জুম্মান, নেপথ্যে- সংগীতা বাড়ৈ, সংগীতা বড়ুয়া ও তানভীর নাহিদ।

সারাবাংলা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × 5 =