শুভশ্রী ছবির শুটিংয়ে ফিরছেন

পরিচালক সপ্তাশ্ব বসুর হাত ধরেই নতুন ছবির শুটিংয়ে ফিরছেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। ছবির নাম ‘ডক্টর বক্সী’। এটি একটি মেডিক্যাল থ্রিলার।

‘পরিণীতা’র পরে আবার এই ছবিতে নতুন লুকে দেখা যাবে শুভশ্রীকে। অভিনেত্রীর কথায়, ‘‘এই ধরনের চরিত্রে দর্শক আগে আমাকে দেখেননি। ট্রাভেল ব্লগারের চরিত্র হলেও, শেড রয়েছে।’’ প্রথম বার ইউভানকে সঙ্গে নিয়ে শুটিং করবেন বলে জানালেন শুভশ্রী। নায়িকা বললেন, ‘‘আউটডোর থাকলেও ইউভান আমার সঙ্গেই সব সময়ে থাকবে। ওকে ছাড়া থাকতে পারব না। শুটিংয়ের পরিবেশে আমার ছেলে বড় হবে।’’

এই ছবিতে প্রথম বার নেগেটিভ চরিত্র করছেন বনি সেনগুপ্ত। ছবিতে তিনি একজন জেল ফেরত আসামীর ভূমিকায়। চরিত্রটি সম্পর্কে বনি বললেন, ‘‘একই ধরনের কাজ করতে করতে ক্লান্ত। এটি পেয়ে খুবই খুশি। প্রথম বার অ্যান্টিহিরো হতে পেরে খুবই ভাল লাগছে। চ্যালেঞ্জিং চরিত্র। আশা করব, দর্শক আমাকে এই ধরনের চরিত্রে পছন্দ করবেন।’’

আর একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা যাবে মাহি করকে। ছবিতে তিনি শাস্ত্রীয় নৃত্যশিল্পীর চরিত্রে। পুজোর পরে ছবির শুটিং শুরু হতে চলেছে। আগামী বছর পয়লা বৈশাখে ছবিমুক্তির পরিকল্পনা রয়েছে।

চিকিৎসক বক্সীর চরিত্রটির জন্য পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে পরিচালকের। ছবিতে শুভশ্রীর চরিত্রটি গল্পের সূত্রধর। হেরিটেজ হোটেলে বেড়াতে গিয়ে একটি খুনের ঘটনায় জড়িয়ে পড়ে সে। সেখানে ডক্টর বক্সী উপস্থিত হয়ে তাকে বাঁচাতে পারে কি না, খুনের ঘটনার নেপথ্যে কোনও চিকিৎসা সংক্রান্ত অপরাধ জড়িয়ে আছে কি না… তা নিয়ে এগোবে গল্প।

পরিচালকের এটি চতুর্থ ছবি। নতুন ছবিটি সম্পর্কে পরিচালক বললেন, ‘‘চিকিৎসা ব্যবস্থার গাফিলতি দেখানো হয়েছিল ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ ছবিতে। সে ছবির সাফল্য এই ছবির অনুপ্রেরণা। এক শ্রেণির চিকিৎসকেরা এই পেশাকে শুধুই রোজগারের মাধ্যম হিসেবে দেখেন। ‘ডক্টর বক্সী’ এমন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের গল্প।’’

আনন্দবাজার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

fifteen − 12 =