সুদর্শন ওয়েটারকে দেখে মন গলে যায় শ্রীলেখার

মাছ ছাড়া কি বাঙালির চলে? তাই বিদেশে গিয়েও শ্রীলেখার মেনুতে সেই মাছ। তবে তা যে সে মাছ নয়, ‘কালনাগিনী মাছ’! তবে বিল দেখে ছোবল খেলেন তিনি! এক প্লেট মাছের দাম ৬৩ ইউরো, ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ছয় হাজার টাকা। ফেসবুকে মাছের সেই মেনু সহ বিলের ছবি দেন শ্রীলেখা। কিন্তু হঠাৎ এরকম মাছের অর্ডার কেন? তার পিছনে রয়েছে অন্য কারণ। তা অবশ্য নিজেই জানিয়েছেন অভিনেত্রী। সুদর্শন ওয়েটারকে দেখে মন গলে যায় শ্রীলেখার। আর তারপরেই অর্ডার এবং এই বিলের ছ্যাঁকা খেলেন অভিনেত্রী।

ভেনিসের পড়ন্ত বিকেলে খালের পাশের একটি ছিমছাম রেস্তোরাঁয় কিছুটা একান্তে সময় কাটাতে ঢোকেন অভিনেত্রী। হঠাৎই শ্রীলেখার সামনে এসে দাঁড়ায় সুর্দশন ইতালীয় যুবক। ওয়েটারের কাজ করেন ওই রেস্তোরাঁয়। বেশ কিছুক্ষণ গল্প করেন শ্রীলেখার সঙ্গে। ইতালীয় যুবক জানান রেস্তোরাঁয়া কাজের পাশাপাশি মডেলিংও করেন তিনি। এমকী অভিনেত্রীর সঙ্গে কথা বলে বিয়ের প্রস্তাবও দিয়ে ফেলেন সেই যুবক। নানা কথার পর যুবক জানতে চান কী খাবেন শ্রীলেখা? খুব বেশি কিছু না ভেবেই এক প্লেট মাছের অর্ডার দিয়ে দেন অভিনেত্রী। খাওয়ার শেষে বিল হাতে পেতেই চোখ কপালে ওঠে শ্রীলেখার। এক প্লেট মাছের দাম ৬৩ ইউরো! এত লম্বা বিল দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেই মাছের নাম দেন কালনাগিনী।

শ্রীলেখা খাওয়ার সঙ্গে বিল ও সুর্দশন যুবকের ছবি শেয়ার করেন তাঁর ফেসবুকে। পাশাপাশি লেখেন, ‘এই সেই কালনাগিনী মাছ (সঙ্গে জুড়ে দেন রাগের ইমোজি)। সুন্দর দেখতে ছেলে দেখে দাম জিজ্ঞেস না করার ফলে এই যে বিল’।

ইউরোপ সফরে গিয়েছেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। সুইজারল্যান্ডে কিছুদিন কাটিয়ে শ্রীলেখা এখন ভেনিসে। তবে শুধুই ঘোরা নয় ভেনিসে যাওয়ার পিছনে রয়েছে অন্য একটি কারণ। জাতীয় পুরষ্কার প্রাপ্ত পরিচালক আদিত্য বিক্রম সেনগুপ্তের ছবি ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন ক্যালকাটা’ আমন্ত্রণ পেয়েছে ৭৮তম ভেনিস আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।

একমাত্র ভারতীয় ছবি যেটি হরাইজনস বিভাগে প্রতিযোগিতায় যোগদান করেছে। ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শ্রীলেখা মিত্র ও ব্রাত্য বসু। ৭ সেপ্টেম্বর প্রিমিয়ার হবে আদিত্য বিক্রমের ছবিটির। ওই দিন শাড়ি পরে রেড কার্পেটে হাঁটবেন অভিনেত্রী। সামনের আরও কটা দিন শ্রীলেখা থাকবেন প্রেমের শহর ভেনিসে।

এই সময়

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

8 − 1 =