সেরা অভিনেত্রী জ্যোতি সিনহা

ইন্দো-ফ্রেঞ্চ ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলেন অভিনেত্রী জ্যোতি সিনহা। শুভাশিস সিনহা নির্মিত ‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই স্বীকৃতি পেলেন তিনি।

 

বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে রাইজিংবিডির সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন জ্যোতি সিনহা। উচ্ছ্বসিত জ্যোতি বলেন—‘‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’ প্রায় ৩৫ মিনিট দৈর্ঘ্যের একটি সিনেমা। আমাকে পুরোটা সময়জুড়ে স্ক্রিনে থাকতে হয়েছে। এটা অন্যরকম একটা কাজ। নতুন এই মাধ্যমে কাজ করার অভিজ্ঞতা ছিল অন্যরকম। এরই মধ্যে অভিনয়ের জন্য দুটো আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি জুটেছে, এটা খুব ভালো লাগছে! এই অর্জন পরিচালক শুভাশিস সিনহাসহ পুরো টিমের।’’

 

চলতি মাসে চলচ্চিত্রটির প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হবে। তা জানিয়ে জ্যোতি সিনহা বলেন, ‘আগামী ২১ জানুয়ারি বিকাল ৫টায় জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে চলচ্চিত্রটির বাংলাদেশ প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হবে। খুব শিগগির কোনো ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চলচ্চিত্রটি মুক্তির পরিকল্পনা নেই। এজন্য এই উৎসবে দেখে নেয়া ভালো। সবাইকে চলচ্চিত্রটি দেখার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।’

 

এর আগে আরেকটি পুরস্কার পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। এ বিষয়ে নির্মাতা শুভাশিস সিনহা রাইজিংবিডিকে জানান, ইন্দো-সিঙ্গাপুর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এশিয়ান শর্টফিল্ম ও সেরা ওম্যানস শর্টফিল্ম নির্বাচিত হয় ‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’। জুরি বোর্ডের বিচারে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর সম্মানও অর্জন করেছেন এই চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী জ্যোতি সিনহা।

 

ধর্ষণ একটি মেয়ের জীবনে কেমন বিপর্যয় তৈরি করতে পারে, তার এক অভিনব রূপায়ন নিয়ে নির্মিত হয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘আজ দীপার সবকিছু ভালো লাগছে’। এর গল্প-চিত্রনাট্য-সংলাপও রচনা করেন শুভাশিস সিনহা।

 

ধর্ষিত দীপার পরবর্তী এক দিনের ভোর থেকে রাত অবধি ভারসাম্যহীন ক্রিয়াকলাপ একেবারেই ভিন্নভাবে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে এই চলচ্চিত্রে। দীপার সবকিছু ভালো লাগে, কারণ সেদিন সন্ধ্যায় সে কিছু একটা পরিকল্পনা করে রেখেছে। নিজেকে ভালো বা স্বাভাবিক রাখার অস্বাভাবিক চেষ্টার মধ্য দিয়ে এক সময় দীপা প্রস্তুতি নিতে থাকে সেই চরম প্রতিশোধের।

 

এতে দীপা চরিত্রে অভিনয় করেছেন মঞ্চের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যোতি সিনহা। চলচ্চিত্রে এটি তার ডেব্যু। ৩৪ মিনিট দৈর্ঘ্যের এই চলচ্চিত্রের প্রায় পুরোটা সময় জুড়ে পর্দায় দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। বিশেষ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুশান্ত টুটুল।

 

চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিচালনায় শর্মিলা সিনহা, শিল্প নির্দেশনায় সজলকান্তি সিংহ, সেট ডিজাইনে বিধান সিংহ, সৌরভ; পোশাক ও রূপসজ্জায় স্বর্ণালী সিনহা, আশা ও শ্যামলী। সম্পাদনা নাহিদ মল্লিক, বিশেষ নেপথ্য কণ্ঠ দীপক সুমন, আবহ যন্ত্রানুষঙ্গ অসিত, জালাল, বাদশা, বিধান, সুমন। ইংরেজি সাবটাইটেলে আসলাম অরণ্য। চলচ্চিত্রটির সিনেমাটোগ্রাফিতে ছিলেন আবিদ মল্লিক। স্থিরচিত্রে অঞ্জন। ‘তাহারা’ নামে এক নতুন অডিও-ভিজ‌্যুয়াল প্ল‌্যাটফর্ম থেকে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি। এর নির্বাহী প্রযোজক উত্তম কুমার সিংহ।

সূত্র: রাইজিং বিডি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

13 − five =