সোয়া লাখ অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হয়েছে

অবৈধ হওয়ায় বন্ধের হয়েছে ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন। তালিকায় থাকা মোবাইল ফোনে এরইমধ্যে মেসেজ পাঠানো হয়েছে। এগুলো পর্যায়ক্রমে বন্ধ করা হবে বলে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে। নতুন নিয়ম কার্যকর হওয়ার প্রথম তিন দিনে (১-৩ অক্টোবর) তিন লাখ ৪৯ হাজার ৬৫২টি মোবাইল ফোন এনইআইআর (ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার) সিস্টেমে অ্যাকটিভেট (সচল) হয়েছে।

জানা যায় ১ অক্টোবর এনইআইআর সিস্টেমে সচল হয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৭৫টি ফোন। এরমধ্যে বৈধ ৭৮ হাজার ৮৭৬টি ও অবৈধ ৪৪ হাজার ১৯৯টি। ২ অক্টোবর সিস্টেমে সক্রিয় হয়েছে ১ লাখ ৩ হাজার ৯৮৯টি মোবাইল ফোন। এরমধ্যে বৈধ ৬৬ হাজার ৩২৬টি, অবৈধ ৩৭ হাজার ৬৬৩টি।৩ অক্টোবর অ্যাকটিভেট হয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ৫৮৮টি ফোন। এর মধ্যে বৈধ ৭৯ হাজার ৫৮৯টি, অবৈধ ৪২ হাজার ৯৯৯টি মোবাইল ফোন।

বৈধ হওয়ায় ২ লাখ ২৪ হাজার মোবাইল ফোন চালু আছে। অবৈধ চিহ্নিত ১ লাখ ২৪ হাজার ৮৬১টি মোবাইল ফোন চালু থাকলেও সেগুলোর গ্রাহককে ফোনটি অবৈধ চিহ্নিত করে মেসেজ পাঠানো হয়েছে। এসব ফোন অপারেটর ধরে ধরে বন্ধ করা হবে বলে বিটিআরসি জানিয়েছে। কিছু ফোন এরইমধ্যে বন্ধ করা হয়েছে।

যারা বন্ধের মেসেজ পেয়েছেন তারা যে দোকান থেকে ফোনটি কিনেছেন সেই দোকানে ফেরত দিয়ে বদলে নিতে পারেন বা টাকা ফেরত নিতে পারেন। বিদেশ থেকে আনা কোনও ফোন যদি বন্ধ হয়ে যায় তবে ফোনটির কাগজপত্র জমা দিলে আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যথার্থতা পেলে ফোন চালু হবে। যারা মোবাইল ফোন নিয়ে আসবেন তারা (www.neir.btrc.gov.bd) সাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।

বিদেশ থেকে মোবাইল ফোন আনা হলে (শুল্কমুক্তভাবে ২টি, শুল্ক দিয়ে ৬টি) পাসপোর্ট, ভিসার কপি, পণ্য ক্রয়ের রশিদসহ প্রয়োজনীয় কাগজ ওয়েবসাইটে (www.neir.btrc.gov.bd) জমা দিয়ে ফোনটি নিবন্ধন করা যাবে। ফোন উপহার পেলে তার পক্ষেও প্রমাণপত্র থাকতে হবে।

বাংলা ট্রিবিউন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

11 − eleven =