হার্ট অ্যার্টাকের ঝুঁকি এড়াতে কী খাবেন

দীর্ঘদিন লকডাউন, কর্মক্ষেত্রে সমস্যা, শারীরিক নানা সমস্যা নিয়ে সব মানুষের মধ্যেই বাড়ছে মানসিক চাপ। এছাড়াও খাবার অভ্যাসেও এসেছে পরিবর্তন। সারাদিন চার দেওয়ালের মধ্যে বন্দি হয়ে কাজ করতে গিয়ে শারীরিক কোনও পরিশ্রমও তেমন ভাবে হয় না। আর মন ভালো রাখতে বেশিরভাগ মানুষই জোর দেন খাওয়াতে। ফাস্ট ফুড খাওয়ার অভ্যেস আগের থেকে অনেক বেশি বেড়েছে। এছাড়াও উইক এন্ড মানেই আরও খাওয়াদাওয়া। সেই সঙ্গে অ্যালকোহল পান বেড়ে গেছে অনেকের।

বাড়িতে বসে কাজ করায় অনেকেই ঠিক অফিস টাইমের ১০ মিনিট আগে ঘুম থেকে উঠে কোনও মতে কাজে বসে যান। রাতেও দীর্ঘক্ষণ জেগে থাকেন।

এই সব কিছুর মিলিত প্রভাব কিন্তু শরীরের উপর পড়ে। আর তাই হার্টকে সুস্থ রাখতে জীবনযাত্রা হতে হবে নিয়ন্ত্রিত। সেই সঙ্গে মেনে চলতে হবে বেশ কিছু নিয়মও। সবার আগে খাওয়া দাওয়াতে রাশ টানতে হবে। দেখে নিন কী কী রাখবেন খাদ্য তালিকায়।

ফল এবং সবজি: অনেকেই আছেন যারা কোনও রকম সবজি খান না। সবজির মধ্যে শুধু খান আলু। ফলের ধারপাশ দিয়েও তারা যান না। এমন মানুষরা হঠাৎ করে সমস্যায় পড়েন। যখন শরীর গুরুতর খারাপ হয় তখন কিন্তু তারা বুঝতেও পারেন না কেন এমন হচ্ছে। তাই নিয়ম করে সবজি, ফল খেতেই হবে। ব্রেকফাস্টে রাখুন মরশুমি ফল।

মাংস: রেড মিট একেবারেই এড়িয়ে চলুন। চিকেন খেলে ব্রেস্ট কিংবা লেগপিস খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে প্রোটিন বেশি শরীরও থাকবে ভালো। চিকেনের বেশি তেল-মশলার রান্না খাবেন না।

বিভিন্ন বাদাম: আমন্ড, আখরোট, পেস্তা, কাঠবাদাম প্রতিদিন খান। সকালে উঠে বিভিন্ন বাদাম একটা করে খেতে পারেন। কিংবা বিকেলের স্ন্যাক্সেও চলতে পারে বাদাম। এতে পেটও ভরা থাকবে সেই সঙ্গে শরীরের জন্যেও কিন্তু ভালো।

মাছ: চিংড়ি, পমফ্রেট, পাবদা, ইলিশ পছন্দের এই সব মাছে কিন্তু ফ্যাট বেশি থাকে। আর তাই চেষ্টা করুন এই সব মাছ এড়িয়ে চলতে। বরং ছোট মাছ খান। রই, কাতলা এসব দেশি মাছ খান। শরীরের জন্য ভালো।

শস্যদানা: বিভিন্ন রকম শস্যদানা ওটস, ডালিয়া এসব রাখুন খাদ্য তালিকায়। ওটস শরীরের জন্য খুব ভালো। হার্ট ভালো থাকে। ওজন কমানোর জন্যেও কিন্তু ওজস ভালো। এছাড়াও সানফ্লাওয়ার সিডস, পামকিন সিডস, চিয়া সিডস, ফ্ল্যাক্স সিডস এসব কিন্তু নিয়মিত খেতে পারেন। ডায়াবিটিস, কোলেস্টেরলের জন্যেও ভালো।

টক দই খান: দুধ চা, পায়েস, মিষ্টি এসব বাদ দিন প্রতিদিনের অভ্যাস থেকে। বরং টক দই খান। ভাত খাওয়ার পর খেতে পারেন টকদই। এছাড়াও ব্রেকফাস্টে খেতে পারেন টক দই। টক দই ফ্যাট ঝরাতে সাহায্য করে, হার্ট ভালো রাখে।

এইসময়

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 + nine =