শাহিদ কাপুরের জন্মদিন আজ

১৯৮১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি ভারতের নতুন দিল্লিতে শাহিদ কপুরের জন্ম। আজ হিন্দি চলচ্চিত্র তারকা শাহিদ কাপুরের জন্মদিন। চুপ চুপ কে, ভিভাহ, যাব উই মেট থেকে শুরু করে কমিনে, হায়দার, কবীর সিংয়ের মতো বহু ভিন্ন স্বাদের সিনেমা তিনি উপহার দিয়েছেন চলচ্চিত্র প্রেমীদের। তাঁর অভিনয়ের প্রশংসা শোনা যায় গোটা দেশ জুড়ে।

শাহিদ কপুর অভিনেতা পঙ্কজ কপুর ও অভিনেত্রী নীলিমা আজিমের ছেলে। শাহিদের বয়স যখন তিন বছর, তখন তার বাবা-মায়ের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর শাহিদ তার মায়ের সঙ্গে থাকতেন। ১০ বছর বয়সে শাহিদ মায়ের সঙ্গে মুম্বই চলে আসেন। সেখানে তিনি শিয়ামক দাবারের ড্যান্স অ্যাকাডেমিতে যোগ দেন। ১৯৯০-এর দশকে কয়েকটি চলচ্চিত্রে শাহিদ সহ-নৃত্যশিল্পী হিসেবে কাজ করেন। পরবর্তীকালে তিনি কয়েকটি মিউজিক ভিডিও ও টেলিভিশন বিজ্ঞাপনেও অভিনয় করেন।

২০০৩ সালে ইশক ভিশক নামে একটি রোম্যান্টিক কমেডি ছবিতে শাহিদ প্রথম প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেন। ছবিটি ‘স্লিপার হিট’ হয়েছিল। এই ছবিতে অভিনয় করে তিনি ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ট পুরুষ নবাগত পুরস্কার পান। এরপর তার অভিনীত কয়েকটি চলচ্চিত্র বাণিজ্যিক সফলতা অর্জনে ব্যর্থ হয়। শেষে অমৃতা রাওয়ের বিপরীতে সুরজ বরজাত্যের পারিবারিক ড্রামা চলচ্চিত্র বিবাহ (২০০৬) বাণিজ্যিকভাবে সাফল্য অর্জন করে। ইমতিয়াজ আলির রোম্যান্টিক কমেডি ছবি জব উই মেট-এ (২০০৭) এক দুশ্চিন্তাগ্রস্থ ব্যবসায়ীর চরিত্রে অভিনয় করে তিনি ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পুরস্কার বিভাগে মনোনয়ন পান। বিশাল ভরদ্বাজের ক্যাপার থ্রিলার কামিনে (২০০৯) ছবিতে যমজ ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করেও তিনি উক্ত বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। এরপর আবার তার অভিনীত কয়েকটি ছবি বাণিজ্যিক সাফল্য অর্জনে ব্যর্থ হয়। এরপর তিনি অ্যাকশন চলচ্চিত্র আর…রাজকুমার (২০১৩) ছবিতে অভিনয় করেন। এটিই তার সর্বাধিক বাণিজ্যসফল চলচ্চিত্র। ২০১৪ সালে শাহিদ কপূর বিশাল ভরদ্বাজের বহুল প্রশংসিত ড্রামা চলচ্চিত্র হায়দার-এ হ্যামলেটের ভূমিকায় অভিনয় করেন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করার জন্য তিনি ফিল্মফেয়ারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেন।

শাহিদকে গণমাধ্যমে অন্যতম আকর্ষণীয় ভারতীয় সেলিব্রিটি হিসেবে গণ্য করা হয়। নিজের কর্মজীবনে একাধিক চড়াই-উতরাই পার হয়েও তিনি নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। প্রথম দিকে তিনি রোম্যান্টিক চরিত্রেই অভিনয় করতেন। পরে তিনি অ্যাকশন চলচ্চিত্র ও থ্রিলারে অভিনয় করতে শুরু করেন। তিনি একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন। এর মধ্যে দুটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারও রয়েছে। অভিনয়ের পাশাপাশি শাহিদ দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলিকে সাহায্য করেন, পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এবং ড্যান্স আপাতবাস্তব টেলিভিশন অনুষ্ঠান ঝলক দিখলা জা রিলোডেড-এ প্রতিভা বিচারকের ভূমিকায়ও অংশ নিয়েছেন। অভিনেত্রী করিনা কপুরের সঙ্গে তার একসময় প্রণয়ের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু সেই সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর ২০১৫ সালে তিনি নতুন দিল্লির এক ছাত্রী মীরা রাজপুতকে বিয়ে করেন। এ দম্পতির কন্যার নাম রাখা হয় মিশা, মীরা ও শাহিদের নামের আদ্যাক্ষর অনুসারে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

18 − 13 =