৫ সিনেমা নিয়ে প্রস্তুত অজয়

২০২৩ সালে হিন্দি সিনেমার বাজার চাঙা রেখেছিলেন শাহরুখ খান ও রণবীর কাপুর। তবে এ বছর তাঁদের অভিনীত কোনো সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে না। তাই সবার কপালে ভাঁজ, এ বছর কে হবেন বলিউডের ত্রাণকর্তা? বারবার নাম উঠে আসছে অজয় দেবগনের। গত বছর অজয়ের মাত্র একটি সিনেমা মুক্তি পেলেও এ বছর তাঁর তালিকা বেশ লম্বা। আছে ‘শয়তান’, ‘ময়দান’, ‘অর মে কাহা দম থা’, ‘সিংহাম অ্যাগেইন’ ও ‘রেড টু’। সবার প্রত্যাশা, বলিউডের বক্স অফিসে এ বছর বড় অঙ্ক যোগ করবেন অজয়।

আগামী ৮ মার্চ মুক্তি পাবে অজয়ের এ বছরের প্রথম সিনেমা ‘শয়তান’। এতে অজয় ও মাধবন আসছেন নায়ক-খলনায়কের জুটি হয়ে। এরপর বড় বাজি অবশ্যই ‘ময়দান’। অমিত শর্মা পরিচালিত সিনেমাটি ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পাবে ১০ এপ্রিল। ভারতীয় ফুটবল কোচ সৈয়দ আব্দুল রহিমের এ বায়োপিক নিয়ে অজয় বলেছেন, এটা তাঁর ক্যারিয়ারের সেরা পারফরম্যান্স। একই মাসে আসবে আরেক সিনেমা ‘অর মে কাহা দম থা’। নীরজ পাণ্ডের পরিচালনায় এ সিনেমায় জুটি হয়েছেন অজয়-টাবু। অজয়ের সঙ্গে টাবুর জুটি যে জমজমাট, সেটা বারবার প্রমাণিত। বছরের প্রথম চার মাসে অজয়ের তিনটি সিনেমা মুক্তি পাবে, এটা নিয়ে খুশি তাঁর ভক্তরা।

যদিও সিনেমা ব্যবসা বিশ্লেষকদের অনেকের সংশয়, এক বছরে একই নায়কের ৫টি সিনেমা মুক্তি পেলে দর্শক অতটা আগ্রহী হবেন কি না! তবে বিপরীত মতও আছে। যেহেতু বলিউডের তিন খান আর রণবীর কাপুরের সিনেমা আসছে না এ বছর, ফলে বক্স অফিস চাঙা রাখার দায়িত্ব অজয় দেবগন আর অক্ষয় কুমারের ওপর। তাই এই দুই নায়কের বেশি সিনেমা এলেও দর্শকদের বড় অংশ সেগুলো দেখতে আগ্রহী হতে পারেন।

আগামী ১৫ আগস্ট মুক্তি পাবে আলোচিত দক্ষিণি সিনেমা ‘পুষ্পা টু’। একে টক্কর দিতে প্রস্তুত তারকাবহুল ‘সিংহাম অ্যাগেইন’। অজয় ছাড়াও এ সিনেমায় কারিনা কাপুর, দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং, অক্ষয় কুমার, টাইগার শ্রফ ও অর্জুন কাপুর আছেন। ফলে লড়াইটা যে সমানে সমান হবে, সেটা আন্দাজ করা যায়। এরপর নভেম্বরে ‘রেড টু’। রাজকুমার গুপ্তর পরিচালনায় এ সিনেমায় অজয়ের সঙ্গে আছেন রীতেশ দেশমুখ ও বাণী কাপুর।

লক্ষণীয়, এ বছর অজয়ের ৫টি সিনেমা মুক্তি পেলেও প্রতিটি ভিন্ন ধরনের। তাই সব ধরনের দর্শক তাঁর সিনেমা দেখতে হলে ভিড় করবেন বলে আশা নায়কের।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

three × five =