৭৫০ মিলিয়ন ডলারের শেয়ার বিক্রি করলেন অ্যাপল নির্বাহী কুক

অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক প্রতিষ্ঠানটিতে থাকা তার মালিকানাধীন পাঁচ মিলিয়ন অর্থাৎ ৫০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। এসব শেয়ার বিক্রি করে তিনি প্রায় ৭৫০ মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় সাড়ে ছয় হাজার কোটি।

মার্কিন সিকিউরিটিস এক্সচেঞ্জ অ্যান্ড কমিশনে জমা দেওয়া অ্যাপলের এক প্রতিবেদনের সূত্রে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, স্টিভ জবস এবং টিম কুক দু’জনই অ্যাপল ইনকর্পোরেশনের জনক। ২০১১ সালের ২৪ আগস্ট পর্যন্ত অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী ছিলেন স্টিভ জবস। এরপর তার কাছ থেকে দায়িত্বগ্রহণ করেন টিম কুক।

টিম কুক অ্যাপলের দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারের মূল্য প্রায় ১২০০ শতাংশ বেড়েছে। সর্বশেষ তিন বছরেই কোম্পানির শেয়ার বেড়েছে ১৯১ দশমিক ৮৩ শতাংশ। বর্তমানে অ্যাপলের বাজারমূল্য প্রায় দুই দশমিক পাঁচ ট্রিলিয়ন ডলার।

২০২০ সালে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী পদে ২০২৬ সাল পর্যন্ত থাকার জন্য চুক্তি নবায়ন করেন টিম কুক। তার নেতৃত্বে অ্যাপল এগিয়ে যাওয়ার পরও নিজের মালিকানার শেয়ার ঠিক এমন মুহূর্তে বিক্রি নিয়ে আলোচনা ছড়িয়েছে।

তবে নিয়ম অনুযায়ীই টিম কুক তার শেয়ার বিক্রি করেছেন। চুক্তি অনুযায়ী দায়িত্বগ্রহণের ১০ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে তিনি এসব শেয়ার বিক্রি করতে পারতেন না।

২০১১ সালে দায়িত্বগ্রহণের হিসাবে ২০২১ সালের ২৩ আগস্ট সেই চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ হয়েছে। এর পরপরই তিনি নিজ মালিকানার শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। যা থেকে তার আয় হয়েছে ৭৫০ মিলিয়ন ডলার।

২০১৫ সালে টিম কুক জানিয়েছিলেন, মৃত্যুর আগে তিন তার অর্জিত সব সম্পদ বিলিয়ে দেবেন এবং সেসময়ের মধ্যে অন্তত ১০ মিলিয়ন ডলার সমপরিমাণের সম্পদ তিনি বিলিয়ে দিয়েছেন।

চুক্তির মেয়াদ শেষের পরপরই তিনি শেয়ার বিক্রি করায় তা বিভিন্ন চ্যারিটি সংস্থায় দিয়ে দিতে পারেন বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। তবে এ বিষয়ে টিম কুক এখনো কোনো মন্তব্য করেননি।

জাগোনিউজ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

19 − three =