স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে হার দিয়ে ইউরো শুরু করলো বেলজিয়াম

এবারের ইউরোতে প্রথম অঘটনের জন্ম দিয়েছে স্লোভাকিয়া। সোমবার বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে পরাজিত করে দারুনভাবে ইউরো শুরু করেছে স্লোভাকরা। ম্যাচে জয়সূচক গোলটি করেছেন ইভান শারাঞ্জ।

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা বেলজিয়ামের তুলনায় ৪৫ ধাপ পিছিয়ে থাকা ফ্রান্সেসকো কালজোনার স্লোভাকিয়া শক্তিমত্তার দিক থেকেও পিছিয়ে ছিল। কিন্তু ফ্রাঙ্কফুর্টে সাহসী পারফরমেন্স দেখিয়ে বেলজিয়ামকে বোকা বানিয়ে তারা জয় আদায় করে নেয়।

ম্যাচ শেষে স্লোভাকিয়ার ডিফেন্ডার ডেভিন হাঞ্চকো বলেছেন, ‘আমরা একটি দুর্দান্ত দলের বিপক্ষে আজ মাঠে নেমেছিলাম। পুরো ম্যাচে আমরা হৃদয় দিয়ে খেলেছি। ইউরোর মত সর্বোচ্চ আসরে এর থেকে ভাল শুরু আর পারেনা। এই ধরনের জয়ে বিশেষ এক প্রেরণা আছে। এর থেকে আত্মবিশ^াস নিয়ে আমরা এগিয়ে যেতে চাই।’

গত মৌসুমের দ্বিতীয় ভাগে ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলির অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে কাজ করেছেন কালজোনা। এই ম্যচে ড্র করতে পারলেও তিনি খুশী হতেন বলে স্বীকার করেছেন। নয় ম্যাচ পর প্রথম আন্তর্জাতিক গোলে শারাঞ্জ যে দলকে এত বড় জয় উপহার দিবেন তা ছিল কল্পনাতীত।

বেলজিয়ামের রোমেলু লুকাকু বেশ কিছু গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেছেন। তার দুটি গোল ভিএআর বাতিল করে দেয়। এসবই বেলজিয়ামকে দিনশেষে হতাশ করেছে। এই জয়ে গ্রুপ-ই’র দরজা প্রতিটি দলের জন্যই আরো উন্মুক্ত হয়ে গেল। দিনের আগের ম্যাচে রোমানিয়া ৩-০ গেলে ইউক্রেনকে পরাজিত করেছে। তবে বেলজিয়ামের জন্য এই পরাজয়টা ছিল সত্যিই হতাশার। আরো একবার বড় টুর্নামেন্টে তাদের লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থতার গল্প হয়তো এর মাধ্যমেই শুরু হয়ে গেল।

২০২২ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেবার পর বেলজিয়ামের সোনালী প্রজন্ম হিসেবে পরিচিত এই দলটি নিজেদের কোনভাবেই মেলে ধরতে পারছে না। গত দুই ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপে রেড ডেভিলসরা কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে। ২০১৮ বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান লাভ করার পর বেলজিয়ামকে নিয়ে প্রতিপক্ষ দলগুলো নতুন করে ভাবতে শুরু করে।

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে কোচ  রবার্তো মার্টিনেজের স্থলাভিষিক্ত হন ডোমেনিকো টেডেসকো। তার অধীনে ইউরোতে আসার আগে বেলজিয়ার ১৪ ম্যাচ অপরাজিত ছিল। টেডেসকো বলেছেন, ‘হার দিয়ে ইউরো শুরু হলো। এটা সত্যিই হতাশার। আজ যে সুযোগগুলো আমরা হারিয়েছি সেটা মোটেই উচিৎ হয়নি। বেশ কিছু সুযোগ আমরা পেয়েছি। এটা ফুটবলেরই অংশ। অবশ্যই আমার খেলোয়াড়রা দারুন হতাশ।’

বেলজিয়ামের হয়ে বড় টুর্নামেন্টে রেকর্ড ১১তম ম্যাচ খেলতে নামা লুকাকু দ্বিতীয় মিনিটে ক্যারিয়ারের ৯৬তম আন্তর্জাতিক গোল প্রায় পেয়েই গিয়েছিলেন। জেরেমি ডকু স্লোভাকিয়ার পেনাল্টি এরিয়ার মধ্যে ক্রস করলে ডি ব্রুইনার কাছ থেকে বল পেয়ে যান লুকাকু। কিন্তু তার শটটি সরাসরি স্লোভাকিয়া গোলরক্ষক মার্টিন ডুব্রাকার হাতে জমা  পড়ে। পরের মিনিটে আবারো লুকাকু বিপদজনক হয়ে উঠেন। কিন্তু এবারও তাকে হতাশ হতে হয়। ৭ মিনিটে কোয়েন কাস্টিলস জুরাজ কুকার শট রক্ষা করলে ফিরতি বল শারাঞ্জ জালে জড়ালে এগিয়ে যায় স্লোভাকিয়া। ইয়ানিক কারাসকোর পাস থেকে লুকাকু আবারো সুযোগ নষ্ট করেন। ৫৬ মিনিটে পোস্টের খুব কাছে থেকে লুকাকুর শট ড্রব্রাভাকা কর্ণারের মাধ্যমে রক্ষা করেন। কর্ণার থেকে আমাদু ওনানা হেডে লুকাকু পোস্টের কাছ থেকে বল জালে জড়ালেও অফসাইডের কারনে তা বাতিল করে ভিএআর। ৮৬ মিনিটে লুকাকু আবারো বল জালে জড়ালে লুইস ওপেন্ডার হ্যান্ডবলে সেটিও বাতিল হয়ে যায়।

ইউরো শুরুর আগে দলের অভিজ্ঞ তারকা কেভিন ডি ব্রুইনা বলেছিলেন জার্মানীতে ভাল কিছু করার প্রত্যাশা নিয়েই তারা যাচ্ছে। গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ রোমানিয়া। ইউক্রেনকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে দারুন উজ্জীবিত রোমানিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটাও যে মোটেই সহজ হবে না তা অনুমেয়।

বাসস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

6 + 17 =