বুলগেরিয়ায় ‘কাঠগোলাপ’ সিনেমার প্রযোজক ফরমান আলী পুরস্কৃত

বিশ্বের অন্যতম মর্যাদা সম্পন্ন বুলগেরিয়ার The Golden Femi Film Festival- এ দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা ‘কাঠগোলাপ’ পুরস্কৃত হয়েছে। ড্রিমল্যান্ড এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারের সিনেমা ‘কাঠগোলাপ’ The Scentless এর প্রযোজক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরমান আলী এশীয় ক্যাটাগরিতে এই পুরস্কার অর্জন করেন।  এরআগে উৎসব কমিটি ফরমান আলীকে আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানায় বুলগেরিয়াতে। ১৮ জুন প্রযোজক ফরমান আলীর হাতে এই পদক তুলে দেওয়া হয়।

এমন প্রাপ্তিতে  খুশি ফরমান আলী। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে একটি পোস্টও দেন। লিখেন “বুলগেরিয়ার গোল্ডেন ফেমি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০২৪ আসরে আামার প্রযোজিত সিনেমা কাঠগোলাপ The Scentless  এর জন্য শ্রেষ্ঠ প্রযোজক, পূর্ণদৈর্ঘ চলচ্চিত্র এশিয়া ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত ও পুরস্কৃত করেছে। বিজ্ঞ জুরি  মন্ডলীকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানানোর পাশাপাশি এই সিনেমার সাথে সংশ্লিষ্ট সকল কলাকুশলী, সিনেমাপ্রেমী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে চাই।”

এরআগে ‘কাঠগোলাপ’ আমেরিকার চান্স উৎসবে গল্প বলার ধরনের কারণে অভিনন্দিত হয় সিনেমাটি। এছাড়াও সিত্তানভাসাল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা এশিয়ান ফিচার ফিল্মের পুরস্কার, নিতিন চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ডেব্যু ফিল্ম, মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত নেভী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা নারী চলচ্চিত্রের মর্যাদা, আথভাকরুনি পুরস্কার, থিলস্রি আর্ন্তজাতিক উৎসবে সেরা নারী ফিচার ফিল্মের মর্যাদা, আমেরিকার এশিয়ান টাইগারস, রোহিপ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা চিত্রনাট্য ছাড়াও কাঠগোলাপ বা The Scentless  সিনেমাটি জাফনা গ্লোবাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা প্রযোজকের মর্যাদা লাভ করে।

সিনেমাটিতে অনেকগুলো মানুষের জীবনের গল্প বলা হয়েছে। কাঠ গোলাপ যেমন প্রচুর সুবাস দেয়, আমাদের এ মানুষগুলোও সবার অনেক কাজে লাগে। এসবের পড়েও মানব মননে একধরনের স্থবিরতা কাজ করে। আর এ থেকেই তৈরি হয় সংকট। সম্পর্কের এমন অনেক স্তর সমাজের চারপাশ জুড়ে দেখা যায়। অব্যক্ত এই সমস্যা কখনো গভীর সংকটের সৃষ্টি করে’- অপূর্ণ রুবেলের এমন গল্প নিয়ে সাজ্জাদ খান নির্মাণ করেছেন ‘কাঠগোলাপ’।

‘কাঠগোলাপ’ সিনেমাটি সেন্সরবোর্ডে জমা পড়েছে গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর। ২৪ সেপ্টেম্বর সিনেমাটি বোর্ডের সামনে প্রদর্শিত হয়। সেন্সর বোর্ডের সিনেমা সংশ্লিষ্ট সদস্যরা নতুন এই গল্পটিকে সাধুবাদ জানান এবং আনকাট সেন্সর দিতে সুপারিশ করেন। তবে সিনেমাটি অদ্যাবধি সেন্সরবোর্ডের চৌকাঠ পেরুতে পারেনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

8 + 19 =