আজ নিউইয়র্কে পাক ভারত ক্রিকেট যুদ্ধ

সালেক সুফী

সকল ম্যাচের আকর্ষণ ছাড়িয়ে আজ রবিবার কিছু সময় পরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টি ২০ বিশ্বকাপের সবচেয়ে আকর্ষণীয় পাক ভারত ক্রিকেট মহাযুদ্ধ। টুর্নামেন্টে কে চ্যাম্পিয়ন হলো তার চেয়েও মোক্ষ বিষয় দুই দলের জগৎজোড়া ভক্ত অনুরাগীদের কাছে আজকের ম্যাচের জয় পরাজয়। নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচে মাঠে সর্বোচ্চ ৩৪ হাজার দর্শক সরাসরি খেলা উপভোগের সুযোগ পাবে। টিকেট নিয়ে চলছে হাহাকার। কিন্তু শংকা আছে খেলায় বাধসাধতে পারে আবহাওয়া। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে সেখানকার স্থানীয় সময় সকল ১১ থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা আছে।

সারা ক্রিকেট বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা কোটি কোটি ক্রিকেট পূজারীর মত আমিও দেখবো ইথার তরঙ্গে ভাষা আজকের ম্যাচ। দুই দলের শক্তির ভারসাম্য বা টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত অবস্থান যাই থাকুক হাই ভোল্টেজ এই ম্যাচে জয় পরাজয় নিয়ে আগাম বলা শুভ বুদ্ধির পরিচায়ক হবে না। দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী এবং বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে জন প্রিয় দল দুইটি বহুদিন কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মুখোমুখি হয়িন। পাকিস্তানের কোন খেলোয়াড় আইপিএল এবং ভারতের কোন খেলোয়াড় পিএসএল খেলেনা। ভারত পাকিস্তানে দল পাঠাতে অস্বীকার করলেও পাকিস্তান কিন্তু শেষ আইসিসি বিশ্বকাপে ভারতে খেলেছে। দুই দলের দৈরথে ভারত কিছুটা এগিয়ে আছে। কিন্তু স্নায়ু চাপের এই ম্যাচে ইতিহাস,পরিসংখান বা দলীয় শক্তি চাপিয়ে ম্যাচের দিন কোন দল নিখুঁত ভাবে যাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারবে তারাই বিজয়ী হবে। বিশ্ব জোড়া বাজিকররা এই খেলা নিয়ে কোটি কোটি টাকার জুয়া খেলবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

ভারত টুর্নামেন্টে প্রথম ম্যাচ দাপটের সঙ্গে জিতে মানসিক ভাবে এগিয়ে আছে। পাকিস্তান হেরেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের কাছে। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে জয় ছাড়া আজ বিকল্প নেই পাকিস্তানের কাছে। আজ খেলার মধ্যে খেলা হবে জাসপ্রিত বুমরা বনাম বাবর আজম, শাহীন আফ্রিদি বনাম রোহিত শর্মা, মোহাম্মদ আমির বনাম বিরাট কোহলি, জাদেজা বনাম রিজওয়ান।  স্নায়ুর চাপে ধরে রাখা দল জয় পাবে।  শাহীন আফ্রিদি, হারিস রউফ, নাসিম শাহ, মোহাম্মদ আমিরের সমন্বয়ে গড়া পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণ জাসপ্রিত বুমরা মোহাম্মদ সিরাজ, অর্শদীপ সিংহ থেকে এগিয়ে।  কিন্তু ভারতের শক্তি জাদেজা -কুলদীপ, চাহালের সমন্বয়ে গড়া স্পিন আক্রমণে।  ভারতের ব্যাটিং গভীরতা অনেক বেশি।  হার্দিক পান্ডিয়া, ঋষভ প্যান্ট, রবীন্দ্র জাদেজা পাকিস্তানের মিডল অর্ডার লেট্ অর্ডার থেকে শক্তিশালী। তবে আবারো বলছি রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি অথবা বাবর আজম বা ফখর জামানের ভালো ইনিংস ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে। একই ভাবে দেখতে হবে শাহীন আফ্রিদি বা জাসপ্রিত বুমরা আজ কোন মূর্তিতে সক্রিয় থাকে।  পাকিস্তানের মিডল অর্ডার কুলদীপ যাদব এবং রবীন্দ্র জাদেজাকে ভালো মত সামাল দিতে হবে। আজ হেরে গেলে হয়তো পাকিস্তানের বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যাবে। তেমনি আজ জিতে গেলে ভারতের পরবর্তী রাউন্ডে উঠা অনেকটাই নিশ্চিত হবে।

আমরা নিরপেক্ষ দর্শক চাই আজকের দিনের ভালো খেলা দল জয়ী হোক। ক্রিকেটের জয় হোক।  বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট খেলাটি সুক্ষ ভাবে দেখা উচিত। বাংলাদেশকে দ্বিতীয় রাউন্ডে এদের একটি এমনকি দুটি দলকেই খেলতে হতে পারে।

সালেক সূফি, ক্রীড়া লেখক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

five × 1 =