টি২০ বিশ্বকাপ: আজ বাংলাদেশের গর্জে ওঠার সময়

সালেক সুফী

এবারের টি২০ বিশ্বকাপের নিজেদের গ্রুপ পর্বের প্রথম খেলায় শ্রীলংকাকে হারিয়ে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার উজ্জ্বল সম্ভাবনা তৈরি করেছে। অপরদিকে গ্রুপের শক্তিশালী দল দক্ষিণ আফ্রিকা দুই ম্যাচের দুটিতেই জয়ী হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করে ফেলেছে।  নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ডের নাসাউ কাউন্টি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দক্ষিণ আফ্রিকানদের বিরুদ্ধে আজকের ম্যাচটি বাংলাদেশের এগিয়ে যাবার মিশন। এই ফরম্যাটে  দুই দলের সাম্প্রতিক ফর্ম, খেলোয়াড়দের দক্ষতা, সক্ষমতার তুল্যমানের বিশ্লেষণে প্রোটিয়ান দল যোজন ব্যাবধানে এগিয়ে।

বলছি না বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা সুদূর পরাহত।  তবে নিজেদের খেলাটা যথাযথ খেলতে পারলে বাংলাদেশ জিতে যাবে না এই কথাটিও বলা ঠিক হবে না। দক্ষিণ আফ্রিকা এই মাঠেই দুটি ম্যাচ জিতেছে। বাংলাদেশের জয়টি একই মাঠে।  জানিনা বৃষ্টি ম্যাচটির ভাগ্য নির্ধারণ করবে কি না। তবে নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে যতটুকু ক্রিকেট দেখলাম উইকেট বাংলাদেশের জন্যই তুলনামূলক বেশি সহায়ক মনে হচ্ছে।

উইকেটে প্রথম ইনিংসে শুরুর দিকে মুভমেন্ট থাকে, পেস ভেরিয়েশন কাজে লাগে। তাসকিন ,মুস্তাফিজ এই ধরণের উইকেটে ঘাতক হয়ে উঠতে পারে।  ভরসা পাচ্ছি তরুণ লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেনকে নিয়ে।  সাকিব আল হাসান শ্রীলংকার বিরুদ্ধে সুবিধা করতে না পারলেও বিশ্বমানের অল রাউন্ডার ঘুরে দাঁড়াবে বলে বিশ্বাস  করি।

এমন বোলিং আক্রমণকে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে জয়ের আশা করা যেতেই পারে।  তবে শংকা আছে বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে বিশেষত টপ অর্ডার ব্যাটিং। সৌম্য, শান্ত, তানজিদ প্রথম ম্যাচে কিছুই করেনি। কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনজিডি, এনরিক নর্তজে এবং মার্কো জেনসেনের সমন্বয়ে গড়া সমৃদ্ধ পেস ব্যাটারির বিরুদ্ধে টপ অর্ডার রুখে দাঁড়াতে না পারলে বাংলাদেশ সংকটে পড়বে।

বাংলাদেশ সৌম্যকে বিশ্রাম দিয়ে এই ম্যাচে জাকির অনিককে খেলাতে পারে।  টপ অর্ডারে মিডল অর্ডার থেকে সাকিব অথবা জাকিরকে প্রমোট করার ঝুঁকি নিতে পারে। প্রথমে ব্যাটিং করলে অন্তত ১৫০ করতে হবে। ভারত ১১৯ করেও ম্যাচ জিতে নিয়েছে।

তাওহীদ হৃদয় ভালো ফর্মে আছে, লিটন ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছে। প্রতিরক্ষা এবং বাধা টপকানোর শেষ ভরসা হয়ে সদা জাগ্রত আছে নীরব ঘাতক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।  সাকিবের কাছ থেকেও একটি ম্যাচ জয়ী ইনিংস পাওনা হয়ে আছে।  আজ জয় পেলে সৃষ্টি সুখের উল্লাসে মেতে উঠবে বাংলাদেশিদের আধার ঘরের আঙ্গিনা।  সৃষ্ট মোমেন্টাম থেকেই পরের দুটি ম্যাচে জয় আসবে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে।

আশার প্রদীপ জ্বালিয়ে প্রতীক্ষায় আছি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × three =