‘ধর্ম ব্যবহার করে ভোটে জেতা যায় না, বার্তা দিলো ভারতের নির্বাচন’

ধর্মকে ব্যবহার করে ভোটে জেতা যায় না, বিশ্বে এই বার্তাই দিয়েছে ভারতের নির্বাচন। গণতন্ত্রের ওপর জনগণের আস্থা আরো এক ধাপ বাড়িয়েছে লোকসভার ভোট। তবে, ভারত বাংলাদেশ সম্পর্ক আরো বাড়াতে দুই দেশের মানুষের পারস্পরিক আস্থা আরো বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন দেশের বিশিষ্টজনেরা।

সম্পাদকদের শীর্ষ সংগঠন এডিটরস গিল্ড আয়োজিত ‘ভারতের নির্বাচন ও ভূরাজনীতি’ শীর্ষক এক গোল টেবিল আলোচনায় একথা বলেন বক্তারা। বক্তারা বলেন, ভারত এমন এক রাষ্ট্র যার ভেতরে শক্তিশালী রাজনৈতিক দলগুলো নিজ নিজ এলাকায় প্রতিষ্ঠিত। তাই বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ ভারতের রাজনীতিতে নির্বাচন শক্তিশালী ভূমিকা রাখে। তাই, নানা বৈরি পরিবেশের মধ্যেও ভোটে রায় দিয়েছেন দেশের মানুষ।

এডিটরস গিল্ডের সভাপতি একাত্তর টেলিভিশনের প্রদান সম্পাদক মোজাম্মেল বাবুর সঞ্চালনায় গোলটেবিল আলোচনা অংশ নেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ কে আব্দুল মোমেন, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শমসের মবিন চৌধুরী, রাজনীতি বিশ্লেষক ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ড. জাইদী সাত্তার, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক এয়ার কমডোর (অব.) ইশফাক ইলাহী চৌধুরী, সাবেক রাষ্ট্রদূত মুন্সী ফয়েজ আহমেদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, আিইনজীবী ও গবেষক ড. ফারজানা মাহমুদ।

বক্তরা বলেন, এবারে ভারতে দুর্বল সরকার হবে। তারপরও বাংলাদেশের বড় প্রত্যাশা থাকবে সীমান্তের হত্যা বন্ধ আর তিস্তার পানি নায্য বন্টন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

eleven + fifteen =