অভিনেতা অলিউল হক রুমির মৃত্যু

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা অলিউল হক রুমি মারা গেছেন। ক্যানসার আক্রান্ত এ শিল্পী আজ সোমবার ভোর ৩টা ৫৮ মিনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি রাজিউন)। তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভিনেতার ভাগনে ফয়সাল আহমেদ। রুমি রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

অভিনেতার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে অভিনেতা কোলন ক্যানসারে ভুগছিলেন। ভারতের চেন্নাইয়ে তাঁর প্রাথমিক চিকিৎসাও হয়। এরপর দেশে চলছিল চিকিৎসা।

মৃত্যুর আগে শারীরিক অসুস্থতার কথা জানিয়ে সবার কাছে দোয়া চেয়েছিলেন অভিনেতা। ক্যানসার জয় করে আগের মতো আবারও স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে চেয়েছিলেন তিনি। তবে ক্যানসারের কাছে হেরে গেলেন অভিনেতা।

অভিনয়জীবনে রুমি তিন দশকেরও বেশি সময় কাজ করেছেন। দীর্ঘ এ পথচলায় অভিনয় করেছেন অসংখ্য নাটক ও সিনেমায়।

গত কয়েক বছর এই অভিনেতা বরিশালের আঞ্চলিক ভাষাতে বেশি অভিনয় করে আসছিলেন। বরগুনায় জন্ম রুমির। তাঁর বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক ও মা হামিদা হক। পরিবারে তিন ভাই ও তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট রুমি।

রুমির অভিনয়ের শুরু হয়েছিল থিয়েটার বেইলি রোডের ‘এখনো ক্রীতদাস’ নাটকের মধ্য দিয়ে। সেটা ১৯৮৮ সালে। একই বছর ‘কোন কাননের ফুল’ নাটকের মাধ্যমে ছোট পর্দায় অভিষেক হয় তাঁর। টেলিভিশনের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন সিনেমায়ও। ২০০৯ সালে ‘দরিয়াপাড়ের দৌলতি’ চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন।

এর পর থেকে অসংখ্য নাটকে অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি নাটক হলো—সাজেশন সেলিম, বোকাসোকা তিনজন, মেকআপ ম্যান, ঢাকা টু বরিশাল, ঢাকা মেট্রো লাভ, বাপ বেটা দৌড়ের ওপর, আমেরিকান সাহেব, জার্নি বাই বাস, বাকির নাম ফাঁকি, রতনে রতন চিনে, আকাশ চুরি, চৈতা পাগল, জীবনের অলিগলি, মেঘে ঢাকা শহর ইত্যাদি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

17 − 11 =