নেটফ্লিক্সে আসছে মার্কেসের ‘নিঃসঙ্গতার এক শ বছর’

কলম্বিয়ায় জন্ম নেওয়া মেক্সিকান লেখক গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেসের স্প্যানিশ ভাষার প্রবাদপ্রতিম উপন্যাস ‘সিয়েন আনিওস দে সোলেদাদ’ প্রকাশ পায় ১৯৬৭ সালে। ১৯৭০ সালে গ্রেগোরি রাবাসা এটি ইংরেজিতে অনুবাদ করার পর গোটা বিশ্বে তুমুল আলোড়ন তোলে, ‘ওয়ান হান্ড্রেড ইয়ার্স অব সলিচুড’। বাংলায় এটির অনুবাদ হয়েছে ‘নিঃসঙ্গতার একশ বছর’ নামে। কেবল গত শতাব্দীর নয়, সাহিত্যের ইতিহাসেই অনন্য এক সাহিত্যকর্ম এটি।

উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের সাহিত্যে নয়া শিল্প–আন্দোলনের অনুপ্রেরণা ছিল এ উপন্যাস। উপন্যাসটির জন্য লেখক গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেস পেয়েছেন বিশ্বজোড়া স্বীকৃতি। এমনকি ১৯৮২ সালে বইটির জন্য মার্কেস সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। লেখার প্রায় ছয় দশক পর সে উপন্যাস নতুন চেহারা নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছে নেটফ্লিক্সে। সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে ১৬ পর্বে নির্মিত সিরিজটির টিজার।

স্প্যানিশ নির্মিত সিরিজটির পরিচালনা করেছেন অ্যালেক্স গার্সিয়া লোপেজ ও লরা মোরা। শুটিং হয়েছে কলম্বিয়ায়, চরিত্রের প্রয়োজনেই নেওয়া হয়েছে লাতিন আমেরিকার অভিনয়শিল্পীদের। নির্বাহী প্রযোজক মার্কেসের দুই ছেলে রদ্রিগো গার্সিয়া ও গঞ্জালো গার্সিয়া বারখা। ১৬ পর্বের সিরিজটির চিত্রনাট্য লিখেছেন হোসে রিভেরা, নাটালিয়া সান্তা, ক্যামিলা ব্রুগেস, মারিয়া ক্যামিলা আরিয়াস ও আলবাত্রোস গঞ্জালেস।

উপন্যাসের পাঠক মাত্রই ঠাহর করতে পারবেন মাকন্দো নামের এক কাল্পনিক গ্রাম আর সেখানকার জাদুবাস্তব সময়। টিজারের শুরু হয়েছে জিপসি রহস্য পুরুষ মেলকেদিয়াসের ডায়েরি থেকে। তারপরই আসে হোসে অরেলিয়ানো বুয়েন্দিয়ার ফায়ারিং স্কোয়াডে দাঁড়িয়ে থাকার দৃশ্য। আসে ছোটবেলার কোনো এক বিকেলে বাবার সঙ্গে তুষার দেখার স্মৃতিও। জনপদ ছেড়ে হোসে আর্কাদিও বুয়েন্দিয়া ও স্ত্রী উরসুলা ইগুয়েরার রোমাঞ্চকর যাত্রা আখ্যান দেখা যাবে পর্দায়।

দেড় মিনিটের টিজারটি এর মধ্যেই সাড়া ফেলেছে। তবে সাহিত্যের অনন্য সৃষ্টিগুলোকে পর্দায় আনাটা বেশ কঠিন। ভক্তদের কল্পনা ও ভাবের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করা প্রায় অসম্ভবই বলা চলে। তবে প্রথম টিজারে ‘হান্ড্রেড ইয়ার্স অব সলিচুড’ যথেষ্ট শক্তিশালী হিসেবেই আবির্ভূত হয়েছে। মুক্তির পর মার্কেসভক্তরা কতটুকু সন্তুষ্ট হন, তা সময় বলে দেবে।

উল্লেখ্য, গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেস ‘নিঃসঙ্গতার একশ বছর’ বইটি লিখেছেন ১৯৬৫ থেকে ১৯৬৬ সালের মধ্যে। আর এটি প্রথম প্রকাশ পায় ১৯৬৭ সালে। এই গ্রন্থটি ২০১৪ সাল পর্যন্ত ৩৭টি ভাষায় অনূদিত হয়ে প্রায় ৫ কোটি কপি বিক্রি হয়। ২০১৭ সালে মূল স্প্যানিশ ভাষা থেকে বাংলায় এটি অনুবাদ করেছেন আনিসুজ জামান।

২০১৯ সালেই জানা যায়, মার্কেসের উপন্যাসটি নিয়ে সিরিজ নির্মাণের স্বত্ব কিনেছে জনপ্রিয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্স। এর আগে এটি নিয়ে সিনেমা কিংবা সিরিজ তৈরি হয়নি। কলম্বিয়ার এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি ডায়নামোর প্রযোজনায় সিরিজটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

নেটফ্লিক্স জানায়, এটি আজ পর্যন্ত লাতিন আমেরিকায় তাদের সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী প্রকল্পগুলোর মধ্যে একটি। এতে কলম্বিয়া ও লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে প্রতিভাবান শিল্পীরা কাজ করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

two × 2 =