ফুটবল লিজেন্ড পেলের মায়ের মৃত্যু, জানতেন না ছেলের মৃত্যুর খবর

ব্রাজিলিয়ান ফুটবল লিজেন্ড পেলের মা সেলেস্তে আরানতেস মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ১০১ বছর। ১৮ মাস আগে তিনি তার ছেলেকে  হারালেও সেই খবরটি তাকে জানানো হয়নি। পরিবারের পক্ষ থেকে আরানতেসের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করা হয়েছে।

পেলেই ছিলেন তার প্রথম সন্তান। ১৯৪০ সালের ২৩ অক্টোবর আরানতেস মাত্র ১৭ বছর বয়সে প্রথম সন্তানের জন্ম দেন। পরবর্তীতে যিনি বিশ্বসেরা ফুটবলার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন।পেলের বড় ছেলে এডিনহো ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘শান্তিতে ঘুমাও, দাদীমা’। এসময় তিনি দাদীকে জড়িয়ে ধরার একটি ছবিও পোস্ট করেন।

মৃত্যুর বিস্তারিত কারন জানা যায়নি। তবে স্থানীয় গণমাধ্যমের সূত্রে জানা গেছে আরানতেস গত আটদিন ধরে হাসপাতালে ছিলেন। শুক্রবার তার মৃত্যু হয়। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন পেলের মৃত্যুর সময় আরানতেস বিভিন্ন ধরনের শারিরীক জটিলতায় ভুগছিলেন। যে কারনে  ছেলের মৃত্যুর খবরটি তাকে জানানো হয়নি।

১৬ বছর বয়সে পেলের বাবা হুয়াও রামোস ডো নাসিমেন্টোকে বিয়ে করেন আরানতেস। তাদের আরো একটি ছেলে ছিল, জায়ের, ২০২০ সালে ক্যান্সারে যিনি মৃত্যুবরণ করেন।

মায়ের শততম জন্মবার্ষিকীতে পেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘ছোটবেলায় মা আমাদের ভালবাসা ও শান্তির মূল্যবোধ সম্পর্কে শিক্ষা দিয়েছিলেন।’ এর নয়দিন পর পেলে সাও পাওলোর হাসপাতালে ভর্তি হন। দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সাথে লড়াই করে এই হাসপাতালেই পেলের মৃত্যু হয়।

বাসস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

one × one =